তালায় ছেলে-বৌয়ের আক্রমন থেকে মাকে রক্ষা করতে যেয়ে ২ প্রতিবেশী আহত

44
Social Share

তালা প্রতিনিধি: তালা উপজেলার বারুইহাটী গ্রামে ছেলে ও তার বৌয়ের হাত থেকে মাকে রক্ষা করতে গিয়ে তাদের হামলায় দুই প্রতিবেশী আহত হয়েছে। আহতরা হলো বারুইহাটী গ্রামের এজেডএম আবু বক্কার সিদ্দিকীর ছেলে ফাহিম ফয়সাল (২৬) এবং তার চাচা তালা মহিলা মাদ্রাসার নৈশ প্রহরী মো. আলী আকবর (৪৪)। বর্তমানে তারা তালা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। শুক্রবার (২৮ মে) সকালে বারুইহাটী গ্রামে উক্ত ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।
হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ফাহিম ফয়সালের মা শিক্ষিকা মাহমুদা সিদ্দীক জানান, তাদের প্রতিবেশী বারুইহাটী গ্রামের মৃত. আব্দুল বারী মোড়লের ছেলে নাজমুল মোড়ল ও তার স্ত্রী জোহরা খাতুন প্রায়ই তার বৃদ্ধা মাকে মারধর করতো। শুক্রবার (২৮ মে) সকালে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে তারা বৃদ্ধা মা কমেলা বেগমকে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয়ার চেষ্টা করে। এ সময় ঐ বৃদ্ধার চিৎকারে আমার ছেলে ফাহিম ফয়সাল ও তার চাচা মো. আলী আকবর এগিয়ে আসে। এঘটনায় ক্ষিপ্ত হয়ে নাজমুল ও তার স্ত্রী জোহরা খাতুন তাদেরকে ইট দিয়ে আঘাত করে রক্তাক্ত জখম করে। পরে তাদেরকে উদ্ধার করে তালা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
এদিকে বৃদ্ধা কমেলা বেগম (৬৫) জানান, “ছেলে নাজমুল ও ছেলের স্ত্রী জোহরা প্রায়ই তাকে মারধর করে এবং বাড়ি থেকে চলে যেতে বলে। ক’দিন আগেও ছেলের বৌ আমাকে ব্যাপক মারপিট করে। শুক্রবার সকালে তারা আমাকে বাড়ি থেকে বের করে দেয়ার চেষ্টা করে। এসময় প্রতিবেশী ফাহিম ফয়সাল ও মো. আলী আকবর আমাকে রক্ষা করতে আসলে তাদেরকে বেদম মারপিট করে। তারা বর্তমানে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে।” তবে এ ব্যাপারে নাজমুল মোড়লের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি।
তালা হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. অতনু ঘোষ জানান, শুক্রবার সকালে বারুইহাটী গ্রামের ফাহিম ফয়সাল ও তার চাচা মো. আলী আকবর আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। বর্তমানে তারা চিকিৎসাধীন রয়েছে।