চীনের সঙ্গে উত্তেজনায় নতুন এফ-১৬ জঙ্গিবিমান উন্মোচন করল তাইওয়ান

58
তাইওয়ান
Social Share

চীনের সঙ্গে উত্তেজনার মধ্যে নতুন ধরনের উন্নত এফ-১৬ জঙ্গিবিমান সামরিক বাহিনীতে যুক্ত করেছে তাইওয়ান এর স্বঘোষিত সরকার। তাইওয়ানের যুদ্ধ ক্ষমতা উল্লেখযোগ্যভাবে বাড়ানোর লক্ষ্যে এই পদক্ষেপ নিয়েছে তাইপে সরকার।

বৃহস্পতিবার নতুন ভার্সনের এফ-১৬ জঙ্গিবিমানের প্রথম স্কোয়াড্রন উন্মোচন করেন তাইওয়ান এর প্রেসিডেন্ট সাই ইং-ওয়েন। আমেরিকার সহযোগিতায় এসব বিমানের কারিগরি ও প্রযুক্তিগত উন্নয়ন ঘটানো হয়েছে।

মার্কিন সামরিক সহযোগিতার জন্য ওয়াশিংটনের প্রশংসা করে সাই ইং বলেন, জঙ্গিবিমান উন্নতকরণ প্রকল্পের মধ্যদিয়ে তাইপে এবং ওয়াশিংটনের মধ্যকার অংশিদারিত্বের প্রমাণ ফুটে উঠেছে।

তিনি বলেন, “আমি বিশ্বাস করি, যতক্ষণ পর্যন্ত আমরা গণতন্ত্র এবং স্বাধীনতার মূল্যবোধের প্রতি অনুগত থাকব ততক্ষণ পর্যন্ত আমাদের মতো অনেক দেশ এই কাতারে এসে দাঁড়াবে।”

চীনের সঙ্গে উত্তেজনার মধ্যে তাইওয়ানের স্বঘোষিত সরকার নতুন ধরনের অত্যন্ত উন্নত এফ-১৬ জঙ্গিবিমান সামরিক বাহিনীতে যুক্ত করেছে। তাইওয়ানের যুদ্ধ ক্ষমতা উল্লেখযোগ্যভাবে বাড়ানোর লক্ষ্যে এই পদক্ষেপ নিয়েছে তাইপে সরকার।

তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট সাই ইং-ওয়েন আজ বৃহস্পতিবার নতুন ভার্সনের এফ-১৬ জঙ্গিবিমানের প্রথম স্কোয়াড্রন উন্মোচন করেন। আমেরিকার সহযোগিতায় এসব বিমানের কারিগরি ও প্রযুক্তিগত উন্নয়ন ঘটানো হয়েছে।

মার্কিন সামরিক সহযোগিতার জন্য ওয়াশিংটনের প্রশংসা করে সাই ইং বলেন, জঙ্গিবিমান উন্নতকরণ প্রকল্পের মধ্যদিয়ে তাইপে এবং ওয়াশিংটনের মধ্যকার অংশিদারিত্বের প্রমাণ ফুটে উঠেছে।

তিনি বলেন, “আমি বিশ্বাস করি, যতক্ষণ পর্যন্ত আমরা গণতন্ত্র এবং স্বাধীনতার মূল্যবোধের প্রতি অনুগত থাকব ততক্ষণ পর্যন্ত আমাদের মতো অনেক দেশ এই কাতারে এসে দাঁড়াবে।”

মার্কিন সামরিক সহযোগিতার জন্য ওয়াশিংটনের প্রশংসা করে সাই ইং বলেন, জঙ্গিবিমান উন্নতকরণ প্রকল্পের মধ্যদিয়ে তাইপে এবং ওয়াশিংটনের মধ্যকার অংশিদারিত্বের প্রমাণ ফুটে উঠেছে।

তিনি বলেন, “আমি বিশ্বাস করি, যতক্ষণ পর্যন্ত আমরা গণতন্ত্র এবং স্বাধীনতার মূল্যবোধের প্রতি অনুগত থাকব ততক্ষণ পর্যন্ত আমাদের মতো অনেক দেশ এই কাতারে এসে দাঁড়াবে।”

চীনের সঙ্গে উত্তেজনার মধ্যে তাইওয়ানের স্বঘোষিত সরকার নতুন ধরনের অত্যন্ত উন্নত এফ-১৬ জঙ্গিবিমান সামরিক বাহিনীতে যুক্ত করেছে। তাইওয়ানের যুদ্ধ ক্ষমতা উল্লেখযোগ্যভাবে বাড়ানোর লক্ষ্যে এই পদক্ষেপ নিয়েছে তাইপে সরকার।

তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট সাই ইং-ওয়েন আজ বৃহস্পতিবার নতুন ভার্সনের এফ-১৬ জঙ্গিবিমানের প্রথম স্কোয়াড্রন উন্মোচন করেন। আমেরিকার সহযোগিতায় এসব বিমানের কারিগরি ও প্রযুক্তিগত উন্নয়ন ঘটানো হয়েছে।

মার্কিন সামরিক সহযোগিতার জন্য ওয়াশিংটনের প্রশংসা করে সাই ইং বলেন, জঙ্গিবিমান উন্নতকরণ প্রকল্পের মধ্যদিয়ে তাইপে এবং ওয়াশিংটনের মধ্যকার অংশিদারিত্বের প্রমাণ ফুটে উঠেছে।

তিনি বলেন, “আমি বিশ্বাস করি, যতক্ষণ পর্যন্ত আমরা গণতন্ত্র এবং স্বাধীনতার মূল্যবোধের প্রতি অনুগত থাকব ততক্ষণ পর্যন্ত আমাদের মতো অনেক দেশ এই কাতারে এসে দাঁড়াবে।”