তরুণদের প্রতিভা প্রদর্শনের সুযোগ : সুজন

2
Social Share

আবারো ঘরোয়া আসরের উন্মাদনায় মেতে উঠছে দেশের ক্রিকেটাররা। রাত পোহালেই শুরু হচ্ছে বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপ। উদ্বোধনী দিনের প্রথম ম্যাচে মুখোমুখি হবে বেক্সিমকো ঢাকা ও মিনিস্টার গ্রুপ রাজশাহী। দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে লড়বে জেমকন খুলনা ও ফরচুন বরিশাল। প্রথম ম্যাচ শুরু হবে দুপুর ১টা ৩০ মিনিটে। আর দ্বিতীয় ম্যাচটি শুরু হবে সন্ধ্যা ৬টা ৩০ মিনিটে। বাংলাদেশ টেলিভিশন এবং দেশের নতুন স্পোর্টস চ্যানেল টি-স্পোর্টস ম্যাচগুলো সরাসরি সম্প্রচার করবে।

বিসিবি পরিচালক খালেদ মাহমুদ সুজন জানিয়েছেন, নিজেদের প্রতিভা প্রদর্শনে বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপ স্থানীয় ক্রিকেটারদের জন্য বড় একটি প্লাটফর্ম। তিনি বিশ্বাস করেন, আসন্ন টুর্নামেন্টটি একই সাথে বাংলাদেশ ক্রিকেটকেও উপকৃত করবে। কারণ টিম ম্যানেজমেন্ট অবশ্যই আরও কিছু ক্রিকেটারকে খুঁজে পাবে, যারা জাতীয় দলে কিছু জায়গা পূরণ করবে।

সুজন বলেন, ‘প্রতিভা প্রদর্শনের জন্য এই টুর্নামেন্টটি স্থানীয় ক্রিকেটারদের জন্য একটি ভাল সুযোগ। ক্রিকেটাররা যেমন স্পটলাইটে যেতে সক্ষম হবে, একই সাথে বাংলাদেশের ক্রিকেটও এই টুর্নামেন্টের মাধ্যমে উপকৃত হবে।’

বিপিএলে বিদেশি ক্রিকেটারদের ছায়ায় থাকতে হয় স্থানীয় ক্রিকেটারদের। এতে স্পটলাইটে আসতে পারে না তারা। বেশিরভাগ সময় স্থানীয় ক্রিকেটাররা গুরুত্বপূর্ণ সময়ে দলের হয়ে ব্যাটিং বা বোলিংয়ে নিজেদের মেলে ধরার সুযোগ পায় না। এজন্য তারা এই দক্ষতা অর্জন পারদর্শী নয়। সুজন বলেন, বিদেশি ক্রিকেটাররা না থাকায় বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে নিজেদের প্রমাণ করার সুযোগ পাবে তরুণ ক্রিকেটাররা।

বাংলাদেশের সাবেক এই অধিনায়ক বলেন, ‘তরুণ ক্রিকেটারদের জন্য এটি খুবই ভালো সুযোগ। যখন বিপিএল শুরু হয়, বিদেশী ক্রিকেটারদের কারনে আমাদের তরুণ বোলাররা গুরুত্বপূর্ণ সময়ে বোলিং করতে পারে না। ফলে ডেথ ওভারে আমরা ভালো বোলার খুঁজে বের করতে পারিনি। আমরা এই টুর্নামেন্ট থেকে কিছু প্রতিভাবান ক্রিকেটার পেতে পারি। অনেক তরুণ ক্রিকেটারকে এই আসরে নিজেদের বিসিবির সামনে প্রমাণ করতে হবে।’

সুজন মনে করেন, তরুণ ক্রিকেটারদের উন্নতিতে প্রতিযোগিতাটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। তিনি বলেন, ‘নিজেদের প্রমাণের ভালো সুযোগ পেয়েছে তরুণ ক্রিকেটাররা। তারা চার ও পাঁচ নম্বরের মত গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় ব্যাট করবে এবং ম্যাচ শেষ করে আসতে হবে। এটি তাদের দক্ষতার পরীক্ষা। এই টুর্নামেন্ট থেকে তারা অনেক কিছুই শিখতে পারবে। তারা কীভাবে চাপকে সামলায়, সেটিই এখন দেখার বিষয়।’