ঢাকাকে সুস্থ ও সুন্দর নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে হবে : মেয়র আতিক

68
Social Share

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন-ডিএনসিসি মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম বলেছেন, সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় অপরিকল্পিত ঢাকাকে একটি সুস্থ ও সুন্দর নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে হবে.

আজ মঙ্গলবার সকালে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব একাডেমী মাঠে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৬তম শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষ্যে কর্মহীন, দুস্থ ও অসহায় মানুষের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি একথা বলেন।

ডিএনসিসি মেয়র ১৯৭৫ সালের ১৫ই আগস্টের কালরাতে ঘাতকদের হাতে নির্মমভাবে নিহত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং তার পরিবারের সদস্যসহ যারা শহীদ হয়েছেন তাদের সকলকে গভীর শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করে সকল শহীদের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন।

মো. আতিকুল ইসলাম বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলার রাজধানী ঢাকাকে প্রাচ্যের সুইজারল্যান্ডের মতো একটি অত্যাধুনিক নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। দখল ও দূষণের বিরুদ্ধে সকলকে সোচ্চার হতে হবে এবং ঢাকাকে দখল, দূষণ ও দুষ্ট লোকের কবল থেকে মুক্ত করতে হবে।

ডিএনসিসি মেয়র বলেন, প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা উপহার হিসেবেই আজ কর্মহীন, দুস্থ ও অসহায় ১ হাজার পরিবারের মাঝে চাল, ডাল, সয়াবিন তেল, চিনি, চিড়া, সুজি, গুঁড়া দুধ এবং লবণ সম্বলিত ১ হাজার প্যাকেট খাদ্যসামগ্রী বিতরণের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

মো. আতিকুল ইসলাম স্থানীয় কাউন্সিলরসহ সমাজের সর্বস্তরের মানুষকে স্বতঃস্ফূর্তভাবে ‘দশটায় ১০ মিনিট প্রতি শনিবার, নিজ নিজ বাসাবাড়ি করি পরিষ্কার’ স্লোগানটিকে বাস্তবায়নের মাধ্যমে সুস্থতার জন্য চলমান সামাজিক আন্দোলনকে সফল করার আহ্বান জানান।

২৮নম্বর ওয়ার্ডেরকাউন্সিলর মো. ফোরকান হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত খাদ্যসামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে নিজের গুরুত্বপূর্ণ বক্তৃতা শেষে তিনি কর্মহীন, দুস্থ ও অসহায় মানুষের হাতে প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে খাদ্যসামগ্রীর প্যাকেট তুলে দেন।

এরপর, ডিএনসিসির মেয়র গুলশানের নগর ভবনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৬তম শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষ্যে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন শ্রমিক কর্মচারী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে অংশ নিয়ে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় বলেন, শোককে শক্তিতে রূপান্তরিত করে সুস্থ, সচল ও আধুনিক ঢাকা গড়ে তোলার লক্ষ্যে সকলকে আন্তরিকভাবে কাজ করতে হবে।

মো. আতিকুল ইসলাম বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বিশ্বের বুকে বাংলাদেশ আজ উন্নয়নের রোল মডেল বলেই স্বাধীনতার পূর্বে যেখানে একটি অর্থবছরে সমগ্র পূর্ব পাকিস্তানের বাজেট ছিল প্রায় ৭০০ কোটি টাকা সেখানে বর্তমানে শুধুমাত্র ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের বাজেটই সাড়ে ৪ হাজার কোটি টাকার বেশী।

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন শ্রমিক কর্মচারী লীগের সভাপতি বজলুল মোহাইমিন বকুলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে অন্যান্যের মধ্যে ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সেলিম রেজা, স্থানীয় কাউন্সিলরবৃন্দ এবং বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তা ও কর্মচারীগণ উপস্থিত ছিলেন।