ডাকসুতে হামলার ঘটনায় ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী

Social Share

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের জানিয়েছেন, আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সুস্পষ্ট করে বলে দিয়েছেন ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুরের ওপর হামলার ঘটনার সঙ্গে যারা জড়িত, তারা যদি দলীয় পরিচয়েরও কেউ হয়, তাদের বিরুদ্ধে অবশ্যই শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিতে। প্রশাসনিকভাবে আইন প্রয়োগকারী সংস্থাকেও বিষয়টি বলা হয়েছে। তিনি গতকাল সোমবার সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন।

এক প্রশ্নের উত্তরে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘ভিন্নমত প্রকাশের অধিকার সবার রয়েছে, ডাকসুর ভিপি আমাদের সমালোচনা করতে পারে, সরকারের সমালোচনা করার অধিকার তার আছে। এখানে অন্য যে বহিরাগতরা আসে এসব কথা অনেকে বলে, যত কিছুই হোক, যে হামলা হয়েছে এটা নিন্দনীয় ঘটনা, আমি এটার নিন্দা করি।’

ছাত্রলীগের বারবার খারাপ খবরের শিরোনাম হওয়া প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘মাঝে মাঝে এগুলো হয়, এখানে আবার মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ নামে একটি প্রতিষ্ঠান—সেটা তো সরাসরি আমাদের দলের সাথে জড়িত নয়, সেখানে মুক্তিযুদ্ধের মঞ্চেরও কেউ কেউ জড়িত।’ তিনি বলেন, ‘ছাত্রলীগের একজনের কথা শুনেছি, ছাত্রলীগ তাকে আগেই বহিষ্কার করেছে অপকর্মের জন্য, বিতর্কিত বলে অনেক আগেই তাকে বহিষ্কার করা হয়েছে।’ হামলার ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের ব্যর্থতা রয়েছে কি না—এমন প্রশ্নের উত্তরে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘সরকারের পক্ষ থেকে বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের গাফিলতি রয়েছে কি না।’

সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘অবশ্যই এ ধরনের ঘটনায় সরকারে বিব্রতকর অবস্থার সৃষ্টি হয়। তবে সরকার কিভাবে দেখছে এটাও দেখার বিষয়। কোনো ঘটনায় সরকার নিবৃত্ত থাকেনি, ব্যবস্থা নিয়েছে। নিজের দলের লোকজন বুয়েটে তো একজনকে মেরেছে, বাকি যারা হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত তাদেরকেও তো আমরা হারালাম, তারা ছাত্রলীগের কর্মী, দলের লোক বলে, ঘরের লোক বলে রেহাই দিইনি, প্রশ্রয় দিইনি। আমাদের মতো দেশে এত মানুষের বাস। রুলিং পার্টি বিশাল পার্টি। এখানে অনুপ্রবেশকারীরা ঢুকে অবাঞ্ছিত ঘটনা ঘটায়। বিষয়গুলো খুব সিরিয়াসভাবে দেখা হচ্ছে।’