টিকা পেতে দেরি হলে অন্য প্ল্যান করতে হবে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

44
Social Share

বিনোদন কেন্দ্রসহ জনসমাগম যেখানে বেশি হয় সেসব স্থান বন্ধ করে দেওয়াসহ আংশিক লকডাউনের সিদ্ধান্ত আসতে পারে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

আজ সোমবার রাজধানীর হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বর্ধিত অংশ উদ্বোধনকালে ভার্চুয়ালি অংশ নিয়ে তিনি একথা বলেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, এ মাসের টিকা আমরা পাইনি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভারতের প্রধানমন্ত্রীকে কেনা টিকার বিষয়ে বলেছেন। কোভ্যাক্সের টিকা পেতে মে, জুন মাস সময় লাগবে। টিকা পেতে দেরি হলে, আমাদের অন্য প্ল্যান করতে হবে। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে যেসব জায়গায় সংক্রমণ বেশি সেসব জায়গায় আংশিক লকডাউনের জন্য সরকারকে পরামর্শ দিয়েছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

তিনি বলেন, সংক্রমণ রোধে সরকারকে আমরা পরামর্শের একটি বড় লিস্ট দিয়েছি। আমরা আশা করছি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সাথে আলোচনা করে দুই একদিনের মধ্যে এসব বিষয়ে সিদ্ধান্ত আসবে।

জাহিদ মালেক বলেন, সংক্রমণ আরো বাড়লে মৃত্যু বাড়বে, অর্থনীতি ক্ষতিগ্রস্ত হবে। হাসপাতালের যত বেড আছে, দেওয়া হয়েছে। আমরা চাইলেই রাতারাতি আইসিইউয়ের ম্যানপাওয়ার বাড়াতে পারব না।

তিনি বলেন, আমরা সরকারকে পরামর্শ দিয়েছি কক্সবাজার, বান্দরবানের মতো বিনোদনমূলক জায়গাগুলো বন্ধ করা বা লোক সমাগম সীমিত করার। পিকনিক, বিয়ে, ওয়াজ বন্ধ বা সীমিত করা, রেস্টুরেন্টে খাওয়া-দাওয়া সীমিত করা ও যানবাহনে যাত্রী অর্ধেক বা সীমিত করা, অফিসে জনবল সীমিত করার পরামর্শ দিয়েছি বলে জানান তিনি।