টিকটক ব্যান করল পাকিস্তান

1362
Social Share

 ২০১৮ সাল থেকে ইমরান খান প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর এই নিয়ে চারবার পাকিস্তানে টিকটক নিষিদ্ধ করা হলো। পাকিস্তানের দাবি, টিকটকের কনটেন্ট ‘অনুপযুক্ত’। তাই দেশে ব্যান করা হলো চিনা অ্যাপ টিকটক। এক বিবৃতিতে পাকিস্তান টেলিকম কর্তৃপক্ষে জানিয়েছে, পাকিস্তানের আদালতের নির্দেশ মানেনি টিকটক। তাদের বিষয়বস্তু ‘অশ্লীল এবং অনৈতিক’। তাই পাকিস্তানে নিষিদ্ধ করা হলো টিকটক।

এর আগে চলতি বছরের জুলাইয়ে কোর্টের নির্দেশে পাকিস্তানে দু’দিনের জন্য ব্যান করা হয়েছিল টিকটক। পাকিস্তানে টিকটক খুবই জনপ্রিয়। তবে টিকটকের সমালোচকও কম নয়। সমালোচকরা মনে করেন, টিকটকের বিষয়বস্তু অনেকটাই অশ্লীল। টিকটকারা এলজিবিটিকিউকে সমর্থন করে কনটেন্ট তৈরি করে বলে অভিযোগ তাদের।

গত মাসেই টিকটক কর্তৃপক্ষ জানায়, গত তিন মাসে আপলোড হওয়া ৬০ লাখ ভিডিও সরিয়ে দেওয়া হবে। এর মধ্যে ১৫ শতাংশ ভিডিও প্রাপ্তবয়স্কদের নগ্নতা প্রদর্শন ও যৌন কার্যকলাপের জন্য সরিয়ে দেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, ২০২০ সালে পাকিস্তানে প্রথমবার টিকটক নিষিদ্ধ করা হয়। তবে পাকিস্তান-চিনের বন্ধুত্বের কথা নতুন করে কিছু বলার নেই। তাই চিন চাপ সৃষ্টি করার পর টিকটকের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিতে বাধ্য হয় পাকিস্তান সরকার। কলকাতা ট্রিবিউন