টাঙ্গাইলে একই পরিবারের ৪ জনকে হত্যা অজ্ঞাত ব্যক্তিদের আসামী করে মামলা, ৩ জনকে জিজ্ঞাসাবাদ

Social Share

কাজল আর্য, টাঙ্গাইল প্রতিনিধি:

টাঙ্গাইলের মধুপুরে একই পরিবারের ৪ জনকে নৃশংসভাবে হত্যার ঘটনায় থানায় অজ্ঞাতনামা আসামীদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। শুক্রবার রাত ১০টার দিকে নিহত ওসমান গণি মিয়ার বড় মেয়ে সোনিয়া বেগম বাদি হয়ে এ মামলা দায়ের করেন। মধুপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তারিক কামাল এ তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন। এদিকে শনিবার সকালে নিহতদের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

ওসি তারিক কামাল বলেন, ‘ মামলায় অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের আসামী করা হয়েছে। মামলাটি অধিক গুরুত্বের সাথে দেখা হচ্ছে। ঘটনাস্থল থেকে বিভিন্ন আলামত সংগ্রহ করে সেই বিষয়ে ইতোমধ্যেই তদন্ত শুরু হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৩ জনকে থানায় আনা হয়েছে। আশা করছি দ্রæতই চাঞ্চল্যকর এই হত্যাগুলোর রহস্য উন্মোচন হবে।’

টাঙ্গাইল ডিবি পুলিশের ওসি শ্যামল কুমার দত্ত বলেন খুনের পেছনে জমি সংক্রান্ত বিরোধ, ব্যবসায়ীক বিরোধ এবং নারী সংক্রান্ত বিরোধ রয়েছে কিনা সেটি নিয়ে আমরা কাজ করছি। আশা করি দ্রæতই কারণ বের করা সম্ভব হবে।

টাঙ্গাইলের পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায় ঘটনাস্থল পরিদর্শনের পর বলেন, ঘটনাস্থলে সিআইডির ক্রাইম সিনের সদস্য, ডিবি, র‌্যাবসহ গোয়েন্দা পুলিশ রয়েছে। তারা ঘটনা উদঘাটনে কাজ করছে। অপরাধীদের গ্রেফতার করতে সক্ষম হবো।’

প্রসঙ্গত, শুক্রবার (১৭ জুলাই) সকাল ৯টার দিকে মধুপুর পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডের উত্তরা আবাসিক এলাকার (মাস্টারবাড়ি) একতলা একটি বাসা থেকে একই পরিবারের চার জনের লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহতরা ওই এলাকার ভ্যান রিকশা ব্যবসায়ী ও সুদের কারবারি ওসমান গনি মিয়া (৪৫), তার স্ত্রী তাজিরন বেগম (৩৭), ছেলে তাইজুল (১৬) ও মেয়ে সাদিয়া (১০)। পুলিশের ধারনা, আরও ২ থেকে ৩ দিন আগে তাদের হত্যা করে বাড়ির বাহিরে থেকে তালা দিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। ঘটনাস্থল থেকে একটি রক্তমাখা কুড়াল উদ্ধার করেছে পুলিশ। এঘটনায় এলাকার মানুষের মধ্যে আতংক বিরাজ করছে।

কাজল আর্য
টাঙ্গাইল প্রতিনিধি