জেরুজালেমে থাকবে যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাস : অ্যান্টনি ব্লিনকেন

45
Social Share

আমেরিকার নতুন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রশাসন ইসরায়েলের দূতাবাস জেরুজালেম নগরীতেই বহাল রাখবে বলে জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের নতুন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিনকেন।

টেক্সাসের রিপাবলিকান সিনেট সদস্য সেন টেড ক্রুজ জিজ্ঞেস করেন, ‘আপনি কি ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে জেরুজালেমকে মেনে নেবেন এবং আপনি কি নিশ্চিত যে যুক্তরাষ্ট্র আমাদের দূতাবাসকে জেরুজালেমে রাখবে?

এমন প্রশ্নের জবাবে ব্লিনকেন বলেন, ‘হ্যাঁ, হ্যাঁ। ভবিষ্যতে ইসরায়েলকে একটি ইহুদিবাদী গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র হিসেবে বিনির্মাণ করতে এবং ফিলিস্তিনকে একটি রাষ্ট্র হিসেবে তাদের মতে দ্বি-রাষ্ট্রীয় নিষ্পত্তি করা জরুরি।’

ব্লিনকেন বলেন, ‘আমি বাস্তবতার ভিত্তিতে চিন্তা-ভাবনা করি। এ বিষয়ে এগিয়ে যেতে নিকটতম কোনো মেয়াদের সম্ভাবনা কঠিন। গুরুত্বপূর্ণ কোনো বিষয়ে দুই পক্ষকে চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলে দেয় এমন কোনো পদক্ষেপ নেব না।’

বাইডেন প্রশাসনের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তার মন্তব্যে ফিলিস্তিনি নেতারা এখনো কোনো মত প্রকাশ করেননি।

অধিকৃত পশ্চিম তীরের হেবরন নগরীর সাংবাদিক লামা খাতের এক টুইট বার্তায় বলেন, ‘সব কিছু যুক্তরাষ্ট্র প্রশাসনে পরিবর্তনযোগ্য, তবে ইসরায়েলের প্রতি সর্বাত্মক আনুগত্য বজায় রেখে।’

২০১৭ সালের ডিসেম্বরে যুক্তরাষ্ট্রের বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসন জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেয়। পরের বছর তেলআবিব থেকে জেরুজালেমে যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাস স্থানান্তর করে।

গত অর্ধশতাব্দীর বেশি সময় ধরে ফিলিস্তিন মধ্যপ্রাচ্যের প্রধান সংঘাতের কেন্দ্র হিসেবে চিহ্নিত হয়ে আসছে। ১৯৬৭ সাল থেকে ইসরায়েল অধিকৃত জেরুজালেম নগরীকে ফিলিস্তিন কর্তৃপক্ষ (পিএ) দীর্ঘকাল যাবৎ ফিলিস্তিনের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতির দাবি জানিয়ে আসছে।

সূত্র : আল-জাজিরা।