টাঙ্গাইলে দাম বেশি রাখায় ৫ হোটেল মালিককে জরিমানা

58
জরিমানা
Social Share

কাজল আর্য, টাঙ্গাইল প্রতিনিধি: দাম বেশি এবং অপরিচ্ছন্নভাবে খাবার তৈরি করায় টাঙ্গাইলে ৫ হোটেল মালিককে ১৮ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। বৃহস্পতিবার দুপুরে সদর উপজেলার নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রানুয়ারা খাতুন এ জরিমানা করেন।

ম্যাজিস্ট্রেট রানুয়ারা খাতুন জানান, শহরের হোটেলগুলোতে অপরিচ্ছন্নভাবে খাবার তৈরি ও খাবারের দামের বিষয়ে অভিযোগ আচে। তাই ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়। শহরের কিছুক্ষন ৫ হাজার, পিয়াসী ২ হাজার, সুরচী ৩ হাজার, টিপটপ ৫ হাজার, ফাইলা ৩ হাজার করে ৫ হোটেল মালিককে ১৮ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এ ধরণের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

দাম বেশি এবং অপরিচ্ছন্নভাবে খাবার তৈরি করায় টাঙ্গাইলে ৫ হোটেল মালিককে ১৮ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। বৃহস্পতিবার দুপুরে সদর উপজেলার নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রানুয়ারা খাতুন এ জরিমানা করেন।

ম্যাজিস্ট্রেট রানুয়ারা খাতুন জানান, শহরের হোটেলগুলোতে অপরিচ্ছন্নভাবে খাবার তৈরি ও খাবারের দামের বিষয়ে অভিযোগ আচে। তাই ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়। শহরের কিছুক্ষন ৫ হাজার, পিয়াসী ২ হাজার, সুরচী ৩ হাজার, টিপটপ ৫ হাজার, ফাইলা ৩ হাজার করে ৫ হোটেল মালিককে ১৮ হাজার টাকা করা হয়। এ ধরণের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

দাম বেশি এবং অপরিচ্ছন্নভাবে খাবার তৈরি করায় টাঙ্গাইলে ৫ হোটেল মালিককে ১৮ হাজার টাকা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। বৃহস্পতিবার দুপুরে সদর উপজেলার নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রানুয়ারা খাতুন এ জরিমানা করেন।

ম্যাজিস্ট্রেট রানুয়ারা খাতুন জানান, শহরের হোটেলগুলোতে অপরিচ্ছন্নভাবে খাবার তৈরি ও খাবারের দামের বিষয়ে অভিযোগ আচে। তাই ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়। শহরের কিছুক্ষন ৫ হাজার, পিয়াসী ২ হাজার, সুরচী ৩ হাজার, টিপটপ ৫ হাজার, ফাইলা ৩ হাজার করে ৫ হোটেল মালিককে ১৮ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এ ধরণের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

দাম বেশি এবং অপরিচ্ছন্নভাবে খাবার তৈরি করায় টাঙ্গাইলে ৫ হোটেল মালিককে ১৮ হাজার টাকা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। বৃহস্পতিবার দুপুরে সদর উপজেলার নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রানুয়ারা খাতুন এ জরিমানা করেন।

ম্যাজিস্ট্রেট রানুয়ারা খাতুন জানান, শহরের হোটেলগুলোতে অপরিচ্ছন্নভাবে খাবার তৈরি ও খাবারের দামের বিষয়ে অভিযোগ আচে। তাই ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়। শহরের কিছুক্ষন ৫ হাজার, পিয়াসী ২ হাজার, সুরচী ৩ হাজার, টিপটপ ৫ হাজার, ফাইলা ৩ হাজার করে ৫ হোটেল মালিককে ১৮ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এ ধরণের অভিযান অব্যাহত থাকবে।