চীনের উদ্বেগ বাড়িয়ে তাইওয়ানে অস্ত্র বিক্রির অনুমোদন যুক্তরাষ্ট্রের

Social Share

চীনের উদ্বেগ বাড়িয়ে তাইওয়ানের কাছে ১৮০ কোটি ডলারের অস্ত্র বিক্রির অনুমোদন দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। তাইওয়ানকে ক্ষেপণাস্ত্র, অত্যাধুনিক কামানসহ বিভিন্ন সামরিক সরঞ্জাম সরবরাহ করবে ওয়াশিংটন।

পেন্টাগন বলছে, চুক্তি অনুযায়ী তিন ধরনের অস্ত্র ব্যবস্থা তাইওয়ানের কাছে বিক্রি করা হবে। এর মধ্যে রয়েছে রকেট লঞ্চার, সেন্সরস ও আর্টিলারি।

অস্ত্র বিক্রির অনুমোদনকে স্বাগত জানিয়েছে তাইওয়ানের প্রতিরক্ষা ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। বিবৃতিতে জানায়, অস্ত্রগুলো তাইওয়ানের প্রতিরক্ষামূলক সক্ষমতা উন্নত করতে সহায়তা করবে। তবে মার্কিন প্রশাসনের এই পদক্ষেপের ফলে চীনের সঙ্গে উত্তেজনা বৃদ্ধি পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে মনে করছেন অনেকেই।

চুক্তি অনুযায়ী, টার্গেটে নির্ভুল আঘাত হানতে সক্ষম ক্রুজ মিসাইল ১৩৫, যুদ্ধবিমানের সঙ্গে যুক্ত থাকতে সক্ষম মোবাইল লাইট রকেট লঞ্চার ও এয়ার রিকনেইস্যান্স পড কিনবে তাইওয়ান।

চীনের কমিউনিস্ট বিপ্লবের পর ১৯৪৯ সালে তাইওয়ান চীন থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এ বিচ্ছিন্নতা না মেনে তাইওয়ানকে নিজেদের একটি প্রদেশ বলে মনে করে চীন। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে তাইওয়ানের সঙ্গে চীনের উত্তেজনা ক্রমান্বয়ে বৃদ্ধি পেয়েছে। এই ভূখণ্ড ফিরে পেতে প্রয়োজনে বলপ্রয়োগের সম্ভাবনাও নাকচ করে দেয়নি বেইজিং।