চিনা আগ্রাসনের নিন্দায় সবর হয়ে ভারতের পাশে জাপান

Social Share

নয়াদিল্লি:‌ ভারত বরাবরই শান্তির পক্ষে। আগে থেকে কোনও দেশকে আক্রমণ করেনি। তবে কেউ আঘাত হানলে পাল্টা কড়া প্রতিঘাত করেছে। গত ১৫ জুন রাতে পূর্ব লাদাখের গালওয়ানে চিনা সেনা নিরস্ত্র ভারতীয় সেনার উপর ‘বর্বর’ আক্রমণ চালায়। শহিদ হয়েছেন ২০ ভারতীয় সেনা এবং আহত হয়েছেন ৭৬ জন। এই ঘটনার পরে ভারত-চিন যুদ্ধের আবহ তৈরি হয়েছে। লাদাখ ইস্যুতে বিশ্বের তাবড় দেশ ভারতকে সমর্থন জানিয়েছেন।

ইতিমধ্যেই রাশিয়া, ইজরায়েল, ফ্রান্স, ফিলিপাইন ভারতকে সমর্থন করেছে। এবার জাপানের তরফে জানানো হল, প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর আগ বাড়িয়ে চিন আগ্রাসন চালাচ্ছে। চিনের আগ্রাসী ভূমিকার নিন্দা জানাচ্ছে তাঁরা। তবে এমন কিছু না ঘটা উচিত যাতে ভারত ও চিনের মধ্যে বর্তমান স্থিতাবস্থা পাল্টে যায়। ভারতের পাশে রয়েছে তাঁরা।

ভারতে নিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত সাতোশি সুজুকি শুক্রবার বলেন, ‘বিদেশ সচিব শ্রিংলার সঙ্গে ভালো আলোচনা হয়েছে। প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর কি অবস্থা তা নিয়ে ওঁর বক্তব্যের যুক্তি আছে এবং GOI–এর নীতি অনুসারে আমরা চাই সীমান্তে শান্তি বজায় থাকুক। জাপান চায় আলোচনার মাধ্যমে শান্তিপূর্ণভাবে সমস্যার সমাধান করুক ভারত-চিন। দ্বিপাক্ষিক দিক থেকেই স্থিতাবস্থা ভঙ্গ হয় এমন কোনও ঘটনা ঘটুক জাপান সেটা কোনওভাবেই চায় না।

প্রসঙ্গত, ডোকলামে বিবাদের সময়ও ভারতের পাশে দাঁড়িয়েছিল সূর্যোদয়ের দেশ জাপান। সম্প্রতি জাপানের নৌবাহিনীর যুদ্ধজাহাজ ভারতীয় নৌবাহিনীর যুদ্ধজাহাজের সঙ্গে সামরিক মহড়াও অংশ নেয়। ভারত-চিন সংঘাতের আবহে যা অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ।