‘চলমান শুদ্ধি অভিযানে আপন-পর ভেদাভেদের সুযোগ নেই

জোট সরকারের শরিক সংগঠন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জাসদের সভাপতি হাসানুল হক ইনু এমপি বলেছেন, বর্তমান সরকারের চলমান উন্নয়নের ধারাকে টেকসই করতে যে শুদ্ধি অভিযান চলছে তা কার্যত: একটি রাজনৈতিক ন্যায়-অন্যায়ের লড়াই। দেশ এগিয়ে যাচ্ছে ইতোমধ্যে বিস্ময়কর অগ্রযাত্রা সাধিত হয়েছে। সাংবিধানিক ও গণতান্ত্রিক ধারা প্রতিষ্ঠা পেয়েছে। সে কারণে দেশে আর যেন কোনো সামরিক সরকার, অসাংবিধানিক সরকার অথবা রাজাকার সমর্থিত সরকার না আসে সেজন্যই এই শুদ্ধি অভিযান। সাম্প্রতিক সময় ছাড়াও বেশ কিছুদিন ধরে আমাদের প্রশাসনের ভিতরে লুকিয়ে থাকা কিছু কালো বিড়াল কিছু অসাধু রাজনৈতিক নেতার যোগাসাজসে উন্নয়নের এই বিস্ময়কর ট্রেনের ভিতর ঢুকে পড়েছে। এসব ফসল কাটা ইঁদুর, দুর্নীতিবাজরা ও উই পোকার গোষ্ঠী তারাই আজ বাংলাদেশের স্থিতি ও শান্তি বিনষ্ঠের চক্রান্তে লিপ্ত। এসব নির্মূলে সর্বস্তরে সু-শাসন দরকার। চলমান এই ন্যায়-অন্যায়ের লড়ায়ে আপন-পর কোনো ভেদাভেদ নাই। দল বা মুখ দেখে ভেদাভেদ না করে প্রধানমন্ত্রীর এই শুদ্ধি অভিযানকে জাসদ সমর্থন করে।

সোমবার সকাল ১০টায় কুষ্টিয়া সার্কিট হাউজ মিলনায়তনে দলীয় নেতাকর্মী ও নির্বাচনী এলাকার বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান প্রধানদের সাথে মতবিনিময়কালে এসব কথা বলেন তিনি। এসময় সেখানে দলীয় নেতাকর্মীর উপস্থিত ছিলেন।

সরকারি কোনো কর্মচারীকে গ্রেফতার না করার যে আইন পাস হয়েছে সে বিষয়ে ইনু বলেন, কেউই আইনের ঊর্দ্ধে নয়। কোনো সরকারি কর্মকর্তা বা কর্মচারী অন্যায় বা অপরাধ করবে আর তাকে গ্রেফতার করা যাবে না এমন কোনো আইন বাংলাদেশে পাস হয়নি।