চট্টগ্রাম মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের ভার্চুয়াল সম্মেলন ১৯ জুন, কমিটি ঘোষণা হবে পরদিন

47
Social Share

লকডাউনের কারণে দুই দফা সম্মেলনের সূচি পেছানোর পর আগামী ১৯ জুন চট্টগ্রাম মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের ভার্চুয়াল সম্মেলনের দিনক্ষণ নির্ধারণ করেছে কেন্দ্র। নগরীর লালখান বাজার ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে ত্রি-বার্ষিক এই সম্মেলনে স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় নেতারা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হবেন।

তবে সম্মেলনের দিন দ্বিতীয় অধিবেশন অনুষ্ঠিত হলেও কমিটি ঘোষণা হবে পরদিন। নগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট এইচ এম জিয়াউদ্দিন রাজনীতি সংবাদকে এ তথ্য জানান।

এর আগে দুই দফা গত ১১ এপ্রিল ও ২৯ মে চট্টগ্রাম মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্মেলনের দিনক্ষণ নির্ধারণ করা হয়েছিল। কিন্তু করোনা পরিস্থিতিতে লকডাউনের কারণে সম্মেলন স্থগিত করা হয়।

দীর্ঘ প্রায় ২০ বছর পর ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনকে ঘিরে চট্টগ্রাম মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতা-কর্মীদের মধ্যে উদ্দীপনা দেখা যাচ্ছে।

২০০১ সালের ১৪ জুলাই নগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের ২১ সদস্যের আহ্বায়ক কমিটি গঠন হয়েছিল। এটি ছিল মহানগরে সংগঠনটির প্রথম কমিটি।

গত প্রায় ২০ বছর ধরে নগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতৃত্ব পরিবর্তন হয়নি। নগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট এইচ এম জিয়াউদ্দিন, তিন যুগ্ম আহ্বায়ক- কে বি এম শাহজাহান, সালাউদ্দিন আহমেদ ও আমিনুল ইসলামের নেতৃত্বাধীন কমিটির সদস্যরা কাগজ-কলমে এখনো পদ আঁকড়ে আছেন।

নগরীতে আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন যুবলীগের সাংগঠনিক কর্মকাণ্ড সচল থাকলেও স্বেচ্ছাসেবক লীগের তেমন কোনো কার্যক্রম নেই। গত ২০ বছরে সংগঠনটিতে জং ধরেছে বলে মনে করছেন নেতা-কর্মীরা। এ অবস্থায় নগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাংগঠনিক গতিশীলতা ফিরিয়ে আনতে সম্মেলনের উদ্যোগ নিয়েছে কেন্দ্র।

দলীয় সূত্রের খবর, নগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের এবার ১০১ সদস্যের কমিটি গঠন করা হবে। সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশনে কাউন্সিলরদের নিয়ে গঠিত সাবজেক্ট কমিটি ভোটের মাধ্যমে নগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের নতুন নেতৃত্ব নির্বাচন করবে। সাবজেক্ট কমিটি গঠনের জন্য নগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের ৪৩টি সাংগঠনিক ওয়ার্ড ও ১৫ থানা থেকে দুইজন করে কাউন্সিলর নির্বাচন করা হবে।

নগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট এইচ এম জিয়াউদ্দিন রাজনীতি সংবাদকে বলেন, সম্মেলনের দিন নেতৃত্ব নির্বাচনের জন্য সাবজেক্ট কমিটি গঠন করা হবে। কাউন্সিলরদের নিয়ে এই সাবজেক্ট কমিটি নতুন নেতৃত্ব নির্বাচন করবেন। নেতৃত্ব নির্বাচন প্রক্রিয়া গোপন ভোটের মাধ্যমেই হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। সম্মেলনের দিন ভোট নেওয়া হবে। কিন্তু সময় স্বল্পতার কারণে সেদিন নির্বাচিতদের নাম ঘোষণা করা যাবে না। কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের মতামত নিয়ে পরদিনই কমিটি ঘোষণার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

দলীয় সূত্রের খবর, নগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক হতে লড়াইয়ে অন্তত এক ডজনেরও বেশি নেতা রয়েছেন। এদের মধ্যে আলোচনায় আছেন-এডভোকেট তসলিম উদ্দিন, আজাদ খান অভি, শাহেদ আলী রানা, ইসলামিয়া কলেজের সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আজিজুর রহমান আজিজ, লালখান বাজার ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবুল হাসনাত মো. বেলাল, দেবাশীষ নাথ দেবু, সুজিত দাশ, হেলাল উদ্দিন, আবদুর রশিদ লোকমান, মনোয়ার জাহান মনি ও মো. জসিম উদ্দিন।