চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় সাদা বাঘের ঘরে জন্মেছে নতুন শাবক

74
Social Share

চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় আফ্রিকা থেকে আমদানি করা বাঘ দম্পতি রাজ-পরীর মেয়ে শুভ্রার ঘরে জন্মেছে নতুন শাবক। চিড়িয়াখানায় থাকা একমাত্র সাদা বাঘ শুভ্রা’র ঘরে প্রথমবারের মতো জন্ম নিয়েছে এ ছানাটি। তবে এখনও তার নাম ঠিক করা হয়নি।
আজ বৃহস্পতিবার  এ বাঘ ছানার জন্ম নেওয়ার তথ্য জানিয়েছেন চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানার কিউরেটর ডা. শাহাদাত হোসেন শুভ।
তিনি বলেন, ‘বিরল প্রজাতির সাদা বাঘের ঘরে নতুন অতিথি এসেছে। ক্যাপটিভ ব্রিডিং-এ যে সমস্যা, অনেক সময় বাঘ তার বাচ্চাকে দুধ দিতে চায় না। সেক্ষেত্রে তাকে আলাদা করে দুধ দিয়ে বাঁচানো খুবই কঠিন কাজ।
তিনি আরও বলেন, এর আগে বাঘ ছানা জো বাইডেনের জন্মের সময় আমাদের প্রথম অভিজ্ঞতা হয়। এই অভিজ্ঞতা আমাদের কাজে লাগছে এবং বাঘের যে অধিক মৃত্যুহার তা চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানা কমাতে পারছে। দিনে ৬ বার ৭৫ মিলিমিটার করে ছাগলের দুধ দেওয়া হচ্ছে নতুন অতিথিকে।
সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় আফ্রিকা থেকে আমদানি করা বাঘ দম্পতির মেয়ে শুভ্রা (সাদা বাঘ) গত ২৬ আগস্ট শাবকের জন্ম দিয়েছে। এ নিয়ে এ পরিবারে এখন সদস্য সংখ্যা ১০। নতুন জন্ম নেওয়া এ শাবকটি আগামী ৬ মাস কিউরেটরের তত্ত্বাবধানে থাকবে। এরপর তাকে খাঁচায় দেওয়া হবে।
১৯৮৯ সালে প্রতিষ্ঠিত চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় ২০০৩-এ ঢাকা চিড়িয়াখানা থেকে দুটি বাঘ আনা হয়। এরপর ২০০৬ সালে বাঘ ‘চন্দ্র’ ও ২০১২ সালের ৩০ অক্টোবর ‘পূর্ণিমা’ মারা যায়। এরপর থেকে গেলো ৪ বছর বাঘহীন অবস্থায় ছিল চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানা। ৪ বছর বাঘশূন্য থাকার পর এক জোড়া নতুন বাসিন্দা পেলো চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানা। ৩৩ লাখ টাকা ব্যয়ে এখানে আনা হয়েছে সুদূর দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে বেঙ্গল টাইগার প্রজাতির বাঘ-বাঘিনী।