গোপালগঞ্জে যাত্রীবাহী বাস ও ট্রাকের সংঘর্ষে নিহত ৩, আহত ১২

গোপালগঞ্জে যাত্রীবাহী বাস ও ট্রাকের সংঘর্ষে তিন জন নিহত ও ১২ জন আহত হয়েছে। যাত্রীবাহী বাসটি ঢাকা থেকে পিরোজপুরের নাজিরপুর যাচ্ছিল।

আজ শনিবার ভোর রাত তিনটার দিকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কে গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার শোনাশুর নামক স্থানে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

গোপালগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের কর্মি ও পুলিশ হতাহতদের উদ্ধার করে গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে পাঠিয়েছে।

নিহতরা হলেন বিজন হাওলাদার(২৫) পিতা-নারায়ন হাওলাদার, রাসেল(২৪), পিতা- নুর ইসলাম এবং কমল মন্ডল(২৫), পিতা-যশোরথ মন্ডল। এদের সবার বাাড়ি পিরোজপুর জেলার নাজিরপুর উপজেলার বিভিন্ন স্থানে।

ফরিদপুরের ভাঙ্গা হাইওয়ে থানার ওসি আতাউর রহমান ও গোপালগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক মোঃ জানে আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

গোপালগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক মো. জানে আলম জানান, রাত তিনটার দিকে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা ইমাদ পরিবহনের পিরোজপুরের নাজরপুরগামী একটি নৈশকোচ (ঢাকা মেট্রো-ব-১৫-৩৮৫৫) ঘটনাস্থলে পণ্যবাহী একটি দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকের (ঢাকা মেট্রো-ট-২০-৭০৮৪) পেছনে এসে সজোরে ধাক্কা লাগায়। এতে ঘটনাস্থলেই বাসের তিন যাত্রী নিহত ও অপর ১২জন যাত্রী আহত হয়। এদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা গুরুতর।

মারাত্মক আহতদের মধ্যে একজনকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। বাকীদেরকে গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।