গোপালগঞ্জে দুইটি ইউনিয়ন লকডাউন ঘোষণা

42
Social Share

সুব্রত বিশ্বাস সজিব, গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি: অধিকহারে করোনা রোগী শনাক্ত হাওয়ায় গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার সাতপাড় ও বোলতলী ইউনিয়ন লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার দুপুর 2 টা থেকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী লকডাউন কার্যকর করতে মাঠে নেমেছে।

বৌলতলী ইউনিয়নের তেলিভিটা গ্রামে কয়েকদিন আগে একটি পরিবারের ৩ জন করোনা আক্রান্ত হন। এছাড়া একজন মৃত্যুবরণ করলে স্বাস্থ্য বিভাগের পক্ষ থেকে এর পক্ষ থেকে মৃতের সংস্পর্শে আসা ১৭৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এদের মধ্যে ২৩ পজিটিভ রোগী পাওয়া যায়। এরপর প্রশাসন এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে।
গোপালগঞ্জ সিভিল সার্জন অফিসের পক্ষ থেকে ওই ইউনিয়ন দুটিতে এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত আরো ৮৭ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। নমুনা সংগ্রহের এই প্রক্রিয়া অব্যাহত থাকবে বলে সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে জানা গেছে।

প্রশাসন ধারণা করছে, সংখ্যালঘু অধ্যুষিত ইউনিয়ন দুটির অধিবাসীদের মধ্যে ভারতে যাতায়াতের প্রবণতা রয়েছে।বৈধ ও অবৈধ দুই পথে যাতায়াত করে থাকেন তারা। ফলে আক্রান্তদের মধ্যে ভারতীয় ভেরিয়েন্ট থাকার সম্ভাবনা রয়েছে।
এদিকে স্বাস্থ্য বিভাগ বলছে, এপর্যন্ত গোপালগঞ্জ জেলায় ৩.৭৬৯ জন আক্রান্ত হয়েছে। শুধু মে মাসে আক্রান্তের সংখ্যা ১৭৮ জন। এপর্যন্ত গোপালগঞ্জ জেলায় মারা গেছে ৩৭ জন। এ হিসাব সহকারী, তবে বেসরকারি হিসাবে এ সংখ্যা অনেক বেশি।
জেলা সিভিল সার্জন অফিসের এমওসিএস ডাক্তার মোঃ সাকিবুর রহমান জানান,গত মার্চ মাসে আক্রান্তের হার ৪.৫% ছিল। এপ্রিল মাসে তা লাফিয়ে ১৪.৫% এ দাড়িয়েছে।

গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ রাশেদুল রহমান জানান,লকডাউন চলাকালে ইউনিয়ন দুইটির হাট-বাজার দোকানপাট বন্ধ থাকবে। গণপরিবহন চলাচল সীমিত রাখা হবে। অতি প্রয়োজন ছাড়া কাউকে ঘর থেকে বের না হওয়ার জন্য পরামর্শ ও সরকারি অনুদান প্রদান করা হবে। পরিস্থিতি পর্যালোচনায় আগামীকাল শুক্রবার সকাল থেকে সাহাপুর ইউনিয়ন ও লকডাউন ঘোষণা করা হতে পারে।