গুরুতর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে সমরেশ মজুমদার

65
Social Share

গুরুতর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ভারতের পশ্চিমবঙ্গের নন্দিত ঔপন্যাসিক সমরেশ মজুমদার। প্রচণ্ড শ্বাসকষ্ট নিয়ে পশ্চিমবঙ্গের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন তিনি। তাকে ভেন্টিলেশনে দেওয়ার কথা ভাবা হচ্ছে বলে জানাচ্ছেন চিকিৎসকরা। তিনি করোনায় আক্রান্ত কি-না তা পরীক্ষা করা হবে।

শুক্রবার (১১ জুন) বিকেল থেকেই শ্বাসকষ্ট শুরু হয় সমরেশ মজুমদারের। নিঃশ্বাস নিতে কষ্ট হচ্ছিল তাঁর। ঝুঁকি না নিয়ে তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করেন পরিবারে লোকজন।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, শ্বাসনালীতে সংক্রমণ রয়েছে সমরেশবাবুর। করোনায় আক্রান্ত কি-না পরীক্ষা করা হচ্ছে। চেস্ট স্ক্যান, সিটি স্ক্যানসহ রক্তেরও কিছু পরীক্ষা করা হচ্ছে তাঁর।

চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন, সমরেশ মজুমদারের গত ১০-১২ বছর ধরে COPD-(ক্রনিক অবস্ট্রাকটিভ পালমোনারি ডিজিজ)- এর সমস্যা রয়েছে। সিওপিডি হলো ফুসফুসের একধরনের জটিল রোগ। এতে শ্বাসপ্রশ্বাসে সমস্যা হয়।

জি নিউজের খবরে বলা হয়, সমরেশ মজুমদারের ২০১২ সালেও একবার গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন। সেসময়ও তাকে ভেন্টিলেশনে দেওয়া হয়েছিল। এই মুহূর্তে তাকে আইসিইউতে রাখা হয়েছে এবং প্রয়োজনীয় সমস্ত পদক্ষেপ নিচ্ছেন চিকিৎসকরা।

প্রসঙ্গত, ঔপন্যাসিক হিসাবে বহুবছর ধরে দুই বাংলার পাঠক মনে বিশেষ জায়গা করে নিয়েছেন সমরেশ মজুমদার। ১৯৮২ সালে আনন্দ পুরস্কার ও ১৯৮৪ সালে সাহিত্য অকাদেমি পুরস্কার পান তিনি। বেশকিছু জনপ্রিয় টিভি ধারাবাহিকের কাহিনীও তার লেখা। বর্তমানে তার বয়স ৭৬ বছর।

সমরেশ মজুমদার ১৯৪২ সালের ১০ মার্চ ডুয়ার্সের গয়েরকাটায় জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৭৬ সালে দেশ পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছিল তার প্রথম উপন্যাস ‘দৌড়’। এরপর একে একে সাতকাহন, তেরো পার্বণ, স্বপ্নের বাজার, উজান গঙ্গা, ভিক্টোরিয়ার বাগান, আট কুঠুরি নয় দরজা, অনুরাগ-এর মতো উপন্যাস উপহার দিয়েছেন তিনি।