গরুর হাটে স্বাস্থ্যবিধি ভাঙলে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা : ডিএসসিসি মেয়র

Social Share

আসন্ন ঈদুল আযহার কুরবানীর পশুর হাটে স্বাস্থ্যবিধি ভঙ্গ করলে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস।
তিনি বলেন, ‘গরুর হাট পরিচালনায় এবার ইজারার বরাদ্দপত্রে স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করার জন্য সব ধরণের নির্দেশনা দেয়া হবে। হাট পরিচালনা বা এর সাথে সংশ্লিষ্ট কেউ সে নির্দেশনা ভঙ্গ করলে আমরা শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেবো।’
আজ স্থানীয় সরকার মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলামের সাথে পশুর হাট ব্যবস্থাপনা বিষয়ক এক ভিডিও কনফারেন্সে অংশ নিয়ে মেয়র এসব কথা বলেন।
ডিএসসিসি মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস স্থানীয় সরকার মন্ত্রীকে জানান, ‘করোনা মহামারি বিবেচনায় নিয়ে এবার গরুর হাটে যাতে করে স্বাস্থ্যবিধি মানা হয়, সেটা নিশ্চিত করতে ইতোমধ্যে আমরা ব্যবস্থাপনা কমিটি করে দিয়েছি। যে ক’দিন হাট চলবে, কমিটি সার্বক্ষণিকভাবে সেসব হাটগুলো তদারকি করবে, যাতে করে মহামারি করোনা বিস্তৃতি লাভ করতে না পারে। এছাড়াও, স্বাস্থ্যবিধি পালন নিশ্চিত করতে এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেটের মাধ্যমে নিয়মিত মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হবে।’
মেয়র জানান, ‘অস্থায়ী এ সকল গরুর হাট তিন থেকে পাঁচ দিনের জন্য অনুমোদন দেওয়া হবে এবং গরু কেনা-বেচায় একটি গরু থেকে কতটুক দূরত্বে আরেকটি গরু রাখতে পারবে, সেটাও আমরা চিহ্নিত করে দেব। আর হাটগুলোতে একমুখী চলাচল নিশ্চিত করতে নির্দেশনা প্রদান করা হবে।’
এ সময় স্থানীয় সরকার মন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়ে ডিএসসিসি মেয়র বলেন, মন্ত্রণালয়ের সাথে কর্পোরেশনের চমৎকার সমন্বয়ের ফলে কাজের গতিশীলতাও অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে।
সভায় সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শাহ মো. এমদাদুল হক, কর্পোরেশনের সচিব আকরামুজ্জামান উপস্থিত ছিলেন।