খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের শুনানি ১ মার্চ

Social Share

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগকে নিয়ে কটূক্তি করার অভিযোগে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে করা মামলায় অভিযোগ গঠন বিষয়ে শুনানির জন্য আগামী ১ মার্চ তারিখ ধার্য করা হয়েছে। আজ বুধবার ঢাকার অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম আসাদুজ্জামান নুর এই তারিখ ধার্য করেন।

বুধবার অভিযোগ গঠনের দিন ধার্য ছিল। কিন্তু খালেদা জিয়া বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসাধীন থাকায় তাকে আদালতে হাজির না করায় শুনানি পিছিয়ে নতুন তারিখ ধার্য করা হয়।

২০১৬ সালের ৩১ ডিসেম্বর ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউটে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান দেশের স্বাধীনতা চাননি। তিনি চেয়েছিলেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রিত্ব। জেনারেল জিয়াউর রহমান স্বাধীনতার ঘোষণা দেওয়ায় এ দেশের জনগণ যুদ্ধে নেমেছিল।

ওই অনুষ্ঠানে তিনি আরো বলেন, বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে উন্নয়নের নামে চলছে দুর্নীতি ও লুটপাট। দলীয় লোকদের জঙ্গি বানিয়ে নিরীহ লোকজনকে হত্যা করছে, সংখ্যালঘুর বাড়ি-ঘর ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ করে লুটপাট ও হত্যা করছে। যেমন পুলিশ বাহিনী দিয়ে বিরোধীদলসহ ভালো ভালো লোককে গ্রেপ্তার, গুম এবং হত্যা করছে।

এসব বক্তব্য দেওয়ায় ২০১৭ সালের ২৫ জানুয়ারি জননেত্রী পরিষদের সভাপতি এ বি সিদ্দিকী বাদী হয়ে আদালতে খালেদার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। আদালত বাদীর জবানবন্দি গ্রহণ করে শাহবাগ থানাকে প্রতিবেদন দেওয়ার নির্দেশ দেন। গত বছর ৩০ জুন শাহবাগ থানা প্রতিবেদন দাখিল করে বাদীর অভিযোগের সত্যতা পেয়েছেন বলে আদালতকে জানান।

উল্লেখ্য, দুটি র্দুনীতির মামলায় সাজাপ্রাপ্ত খালেদা জিয়া এখন কারাগারে আছেন। কারা হেফাজতে তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।