খালেদার বিদেশ গমন নির্ভর করছে সরকারের সদিচ্ছার ওপর: ফখরুল

56
Social Share

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া চিকিৎসার্থে বিদেশ যেতে পারবেন কিনা, তা নির্ভর করছে মেডিকেল বোর্ডের সিদ্ধান্ত ও সরকারের সদিচ্ছার ওপর।

তিনি বলেন, বেগম জিয়া অত্যন্ত অসুস্থ অবস্থায় হাসপাতালে সিসিইউতে চিকিৎসাধীন আছেন। আসুন, সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীর আশু রোগমুক্তির জন্য আমরা সবাই মিলে, আন্তরিকতার সঙ্গে দোয়া করি।

আজ দলের চেয়ারপারসনের চিকিৎসার্থে বিদেশ গমন প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

এরপর করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের স্বাস্থ্য সেবা দিতে জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশনের তৈরি ‘জেডআরএফ ট্রিটমেন্ট অ্যাপস’র ভার্চুয়াল উদ্বোধন করেন বিএনপি মহাসচিব। অনুষ্ঠানে লন্ডন থেকে ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ভিডিও বার্তা প্রচার করা হয়। এই অ্যাপসটি উৎসর্গ করা হয় স্বেচ্ছাসেবক দলের প্রয়াত সভাপতি শফিউল বারী বাবুর স্মরণে।

ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক অধ্যাপক ডা. ফরহাদ হালিম ডোনারের সভাপতিত্বে ও সৈয়দ ইমতিয়াজ উদ্দিন সাজিদের পরিচালনায় স্বেচ্ছাসেবক দলের মোস্তাফিজুর রহমান, আব্দুল কাদির ভূঁইয়া জুয়েল, ছাত্রদলের ফজলুর রহমান খোকন, ইকবাল হোসেন শ্যামল, ডা. আশরাফুল হাসান মানিক প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, সরকারের উদাসীনতা, অযোগ্যতা ও অবহেলার কারণে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেছে। করোনা মহামারির মতো সংকট গণতান্ত্রিক সরকার ছাড়া মোকাবিলা সম্ভব নয়। আমাদের সবচেয়ে বড় প্রয়োজন একটা গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র ব্যবস্থা, গণতান্ত্রিক সরকার ও গণতান্ত্রিক একটা পার্লামেন্ট তৈরি করা। যেখানে জবাবদিহিতা, জনগণের প্রতি দায়িত্ববোধ, মানুষের সাথে সম্পর্ক থাকবে। আসুন এই ‘ফ্যাসিস্ট দানব’ সরকার যারা আমাদের সব কিছু তছনছ করে দিয়েছে তাদের সরিয়ে সত্যিকার অর্থেই আমাদের জাতির ভবিষ্যৎ নির্মাণসহ সব কিছুর জন্য গণতন্ত্রকে ফিরিয়ে আনি। আমরা সবাই মিলে সংগ্রাম করি, লড়াই করি। অবশ্যই আমরা সেই সংগ্রামে জয়ী হবো ইনশাল্লাহ।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, করোনায় যে প্রণোদনা দেয়া হয়েছে তাতে জীবিকার প্রশ্ন মানুষের। সেখানেও পুরোপুরিভাবে দুর্নীতির আশ্রয় গ্রহণ করা হয়েছে। জনগণের জন্য কোনো ব্যবস্থা করা হয়নি। এই সরকার সম্পূর্ণভাবে জনবিচ্ছিন্ন, তাদের কোনো জবাবদিহিতা নেই। সেজন্য মানুষের জীবন-জীবিকার প্রশ্নেও তাদের কোনো দায়িত্ববোধ নাই। সেই দায়িত্বহীনতার কারণে, জবাবদিহি না থাকার কারণে আজকে গোটা জাতিকে একটা চরম বিপদের মুখে ঠেলে দেয়া হয়েছে।