খননকার্যে কাশী বিশ্বনাথের মন্দিরের নিচে মিলল বহু প্রাচীন মন্দিরের ধ্বংসাবশেষ

Social Share

বারাণসী: রাম মন্দিরের কাজ শুরু হওয়ার পর এবার মথুরা, কাশীর মন্দিরের পুনর্দখল নিয়ে সোচ্চার হতে চলেছে সংঘ পরিবার-সহ গেরুয়া শিবির। তাঁদের দাবি, মন্দির ধ্বংস করে মসজিদ তৈরি করা হয়েছে। এদিকে, কাশীবিশ্বনাথ ধামে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ড্রিম প্রোজেক্টের কাজ চলছে। বৃহস্পতিবার শ্রিঙ্গার গৌরি মন্দিরে খননকার্যের সময় মিলল বহু প্রাচীন মন্দিরের ধ্বংসাবশেষ।

জানা গিয়েছে, বৃহস্পতিবার দুপুরে কাশীবিশ্বনাথের মন্দিরের পশ্চিমদিকে খনন কার্য চালাচ্ছিলেন শ্রমিকরা। তখনই বহু প্রাচীন মন্দিরের ধ্বংসাবশেষ মেলে। এই ঘটনায় স্বাভাবিকভাবেই উত্তেজনা ছড়িয়েছে ভক্তদের মধ্যে। বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, মন্দিরের ধ্বংসাবশেষ পরীক্ষা করে দেখা হবে।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ড্রিম প্রোজেক্ট কাশী বিশ্বনাথ করিডোরে আওতায় ঢেলে সাজানো হচ্ছে কাশী বিশ্বনাথ ধাম। কাজ শেষ হলে ভক্তরা গঙ্গা স্নানের পর সরাসরি বিশ্বনাথ মন্দিরে প্রবেশ করতে পারবেন। এছাড়া তীর্থযাত্রীদের খাওয়ার জায়গা, হস্তশিল্প ও স্যুভেনির শ্যাপ, গ্যালারী, মিউজিয়াম, খাবারের দোকান, ধর্মীয় বইয়ের দোকান তৈরির কাজ শুরু হয়েছে। নির্মাণ করা হচ্ছে একটি গ্যালারিও। যেখানে কাশীর ঐতিহ্য ও আধ্যাত্মিকতা প্রদর্শনী করা হবে।

উল্লেখ্য, একাদশ শতাব্দীতে হরি চন্দ্র কাশী বিশ্বনাথ মন্দিরটি পুনর্নির্মাণ করেছিলেন। ১১৯৪ সালে মহম্মদ ঘোরি বারাণসীর অন্যান্য মন্দিরগুলির সঙ্গে এই মন্দিরটিও ধ্বংস করে দেন। এরপর আবার মন্দিরটি পুনরায় র্নির্মাণ করা হয়। তবে এরপর কুতুবুদ্দিন আইবক মন্দিরটি ধ্বংস করেন। আইবকের মৃত্যুর পর মন্দিরটি ফের র্নির্মাণ হয়। এরপরে ১৬৬৯ সালে ঔরঙ্গজেব পুনরায় মন্দিরটি ধ্বংস করে জ্ঞানবাপী মসজিদ তৈরি করেন।