কুম্ভমেলায় গিয়ে করোনায় আক্রান্ত নেপালের রাজা-রানি

35
Social Share

কুম্ভমেলায় যোগ দিতে গিয়েছিলেন নেপালের সাবেক রাজা জ্ঞানেন্দ্র শাহ এবং রানি কোমল। গত মঙ্গলবার তাদের করোনাভাইরাস পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ আসে।

ভারত থেকে দেশে ফেরার পর বিমানবন্দরে তাদের স্বাগত জানাতে উপস্থিত ছিলেন কয়েক শ মানুষ। রাজা-রানির করোনা শনাক্ত হওয়ার পর তাদেরও পরীক্ষা করা হচ্ছে।

করোনাভাইরাস মহামারির মধ্যেই কিছু সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নিয়ে ১ এপ্রিল থেকে শুরু হয় কুম্ভমেলা। যদিও ভারতে করোনা সংক্রমণ বাড়ার মধ্যে এভাবে কুম্ভমেলার আয়োজন নিয়ে শুরু থেকেই সমালোচনা চলছিল।

কুম্ভমেলায় একের পর এক আখড়ায় করোনা ধরা পড়ার পর এ নিয়ে সমালোচনা শুরু হয়। বিষয়টি বিবেচনা করে কুম্ভমেলা থেকে ফিরলেই বাধ্যতামূলক করোনা পরীক্ষার কথাও বলেছে কয়েকটি রাজ্য।

এদিকে ২০০১ সালে নেপালের রাজপ্রাসাদে হত্যাকাণ্ডে মৃত্যু হয় তৎকালীন রাজা বীরেন্দ্র বীর বিক্রম শাহ-সহ বেশ কয়েক জনের। সেই হত্যাকাণ্ডের জন্য দায়ী করা হয় বীরেন্দ্রর ছেলে দীপেন্দ্রকে।

জানা গেছে, তিনিও আত্মহত্যা করেছেন। তার পর রাজা হন বীরেন্দ্রর ভাই জ্ঞানেন্দ্র। তার পর ২০০৮ সালে গণবিদ্রোহের মুখে পড়ে তাকে ক্ষমতা ছাড়তে হয়।

রাজতন্ত্র শেষ হয়ে গেলে নেপালে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা হয়। এখন রাজা জ্ঞানেন্দ্র খুব বেশি জনসমক্ষে আসেন না। এবার তার করোনা আক্রান্ত হওয়ার ঘটনায় আতঙ্ক ছড়িয়েছে নেপালের রাজপ্রাসাদেও।
সূত্র : সংবাদ প্রতিদিন