কুড়িগ্রামে মন্দিরের আট প্রতিমা ভাংচুর করেছে দুর্বৃত্তরা

24
Social Share

বাংলাদেশের কুড়িগ্রামের একটি মন্দিরে বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে আটটি প্রতিমা ভাংচুর করেছে দুর্বৃত্তরা।

এ ঘটনায় একটি সাধারণ ডায়রির পর অনুসন্ধান শুরু করেছে পুলিশ।

কুড়িগ্রামের সদর উপজেলার খানপুর গ্রামের শ্রী শ্রী শীতলীপাত মন্দিরে এই ঘটনা ঘটে।

মন্দির কমিটির সভাপতি প্রদীপ চন্দ্র দাস বিবিসি বাংলাকে বলছেন, শুক্রবার ভোরে পূজারীরা মন্দিরে এসে প্রতিমা ভাঙ্গা দেখতে পান। বৃহস্পতিবার মধ্যরাতের কোন একসময়ে এগুলো ভাঙ্গা হয়েছে বলে ধারণা করছি। এরপর পুলিশে খবর দেয়া হয়।

কে বা কারা এই হামলা করেছে, সে সম্পর্কে তিনি কোন ধারণা দিতে পারেননি। মন্দির নিয়ে তাদের আগে কেউ কোন হুমকি দেয়নি বলে তিনি জানাচ্ছেন।

কুড়িগ্রামের সদর উপজেলার খানপুরা গ্রামের শ্রী শ্রী শীতলীপাত মন্দিরে হামলার ঘটনা ঘটে।
কুড়িগ্রামের সদর উপজেলার খানপুরা গ্রামের শ্রী শ্রী শীতলীপাত মন্দিরে হামলার ঘটনা ঘটে।

কুড়িগ্রাম জেলা পুলিশ সুপার সৈয়দা জান্নাত আরা বিবিসি বাংলাকে বলছেন, ”ঘটনার খবর পেয়েই আমরা ঘটনাস্থলে গিয়েছি। তারা কোন মামলা করতে রাজি হননি, তাই একটি সাধারণ ডায়রি নেয়া হয়েছে। কারা এই ঘটনা ঘটিয়েছে, তাদের ধরণে আমরা অনুসন্ধান শুরু করেছি।”

এর আগে গত নভেম্বর মাসে বাংলাদেশের ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের সংগঠন অভিযোগ করেছে, বাংলাদেশে ধর্ম অবমাননার গুজব ছড়িয়ে দেশের বিভিন্ন জায়গায় সংখ্যালঘুদের বাড়িঘর ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগের মতো ঘটনা ঘটিয়ে উদ্বেগজনক পরিস্থিতির সৃষ্টি করা হয়েছে। তারা এর প্রতিবাদে অবস্থান ধর্মঘট ও প্রতিবাদ মিছিলও করেছেন।

হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের নেতারা বলেছেন, বাংলাদেশে আগেও সংখ্যালঘুদের ওপর হামলা এবং নির্যাতনের অনেক ঘটনা ঘটেছে। কিন্তু কোন ঘটনার বিচার না হওয়ায় সংখ্যালঘুদের মধ্যে নিরাপত্তাহীনতা কাজ করছে। সেজন্য তারা আলাদা সুরক্ষা আইনের দাবিকে সামনে এনেছেন।