কাশ্মীর ইস্যুতে পাকিস্তানের ডাকে সাড়া দেয়নি ওআইসি

পাকিস্তানের পতাকা
Social Share

কাশ্মীর ইস্যুতে ওআইসিকে বৈঠকে বসতে আহ্বান করেছিলো পাকিস্তান। কিন্তু তাদের সেই আহ্বানে সাড়া দেয়নি মুসলিম দেশগুলোর এই জোটটি।

৫ আগস্ট ৩৭০ ধারা বাতিলের এক বছর পূর্তি হয়েছে। গত বছরের এই দিনে ধারাটি বাতিল করে ভারত।

প্রথম বার্ষিকীতে, কাশ্মীর বিষয়ে ওআইসির বাস্তববাদী পদক্ষেপে নিজেকে স্থির রাখতে পারেননি পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি। তিনি সৌদি আরবের প্রতি ক্ষুব্ধ হন।

এছাড়া, কাশ্মীর নিয়ে একটি অধিবেশন আহ্বানের জন্য প্রচারণা শুরু করেছিলো পাকিস্তান। তবে ওআইসিভুক্ত বেশিরভাগ দেশই সাড়া দেয়নি। আর অন্যরা পাকিস্তানের এই পরামর্শ প্রত্যাখ্যান করে। এটা হচ্ছে ওআইসির দ্বারা পাকিস্তানের কূটনৈতিক ও রাজনৈতিক অবমাননা। অথচ তারা এর প্রতিষ্ঠাতা সদস্য।

বর্তমানে করোনা মহামারিতে বিশ্বের প্রতিটি দেশের লক্ষ্য জাতীয় স্বার্থ রক্ষা। সব দেশের সার্বভৌমত্ব রয়েছে।

তেল সমৃদ্ধ দেশ সৌদি আরবও মহামারির প্রভাব মুক্ত নয়। তারা পবিত্র হজও সঠিকভাবে আয়োজন করতে পারেনি। সীমিত আকারে এবারের হজ পালন করা হয়েছে। পবিত্র রমজান মাসেও ধর্মীয় জমায়েত বন্ধ করেছিলো দেশটি।

সৌদি আরব ধর্মীয় দৃষ্টিভঙ্গি এবং ইসলামকে যথাযোগ্য সম্মান দিলেও, তারা তাদের জনগণকে বাঁচানোর প্রয়োজনীয়তাও বুঝতে পেরেছিল।

শেষ পর্যন্ত ওআইসিকে তিরস্কার করে কুরেশি সৌদি আরবের নেতৃত্বাধীন এই জোটের এজেন্ডায় হস্তক্ষেপ করেছেন।