‘কাদা ছোড়াছুড়ি’ ভুলে ‘বিয়ের পবিত্রতা’য় বিশ্বাসী নোবেল?

45
Social Share

১১ সেপ্টেম্বর স্ত্রী সালসাবিল তাঁকে বিচ্ছেদের নোটিশ পাঠিয়েছিলেন। তাঁর অভিযোগ, বাংলাদেশের গায়ক তথা জি বাংলা ‘সারেগামাপা’-খ্যাত মইনুল আহসান নোবেল একাধিক নারীতে আসক্ত। শারীরিক নির্যাতন এবং মাত্রাতিরিক্ত নেশাসক্তির অভিযোগও সেই সঙ্গে ছিল। নোবেল আঙুল তুলেছিলেন বাংলাদেশের বিখ্যাত গায়ক জেমসের দিকে। তাঁর দাবি, খ্যাতনামা গায়ক তাঁর স্ত্রীকে ব্যবহার করছেন! ফেসবুকেও ‘ডিভোর্স’ কথাটিও পোস্ট করেন তিনি। চর্চার শিরোনামে গায়কের টালমাটাল দাম্পত্য। রবিবার রাতে তিনি পাত্রীর খোঁজও করেছিলেন।

টানটান বিতর্কের একটি দিন পার। আচমকাই ভোলবদল নোবেলের। সোমবার তিনিই নতুন পোস্ট দিয়েছেন ফেসবুকে। লিখেছেন, ‘বিয়ে একটা পবিত্র প্রথা। অনুগ্রহ করে বেফাঁস মন্তব্য করে এর পবিত্রতা নষ্ট করবেন না।’ তাঁর দাবি, ‘আমার এবং আমার স্ত্রীর মধ্যেকার সকল বিবাদ পারিবারিক ভাবে মীমাংসা করা হচ্ছে।’ গত কয়েক দিন ধরে প্রকাশ্যে কাদা ছোড়াছুড়ির জন্যও আন্তরিক ভাবে ক্ষমা চান তিনি। নোবেলের এ হেন পরিবর্তনে বিস্মিত অনুরাগীরাও। কেউ পরামর্শ দিয়েছেন, পারিবারিক সমস্যা পাঁচকান না করাই ভাল। যখনই তা প্রকাশ্যে আসে, তখনই আর তা ব্যক্তিগত থাকে না। কারওর দাবি, বৌকে শারীরিক নিগ্রহ করলেই পৌরুষ প্রমাণিত হয় না।