কর্নেল তাহেরকে হত্যার ৪৪তম বার্ষিকীতে জাসদের শ্রদ্ধা নিবেদন ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত গণবিরোধী রাষ্ট্র ব্যবস্থা ও মুক্তবাজার অর্থনীতি দুর্নীতিবাজ ও লুটেরা উৎপাদন পুনরুৎপাদনের কারখানা: হাসানুল হক ইনু এমপি

Social Share

মহান দেশপ্রেমিক, মুক্তিযুদ্ধে সেক্টর কমান্ডার ও মৃত্যুঞ্জয়ী বীর, জাসদ নেতা, সমাজতান্ত্রিক বিপ্লবী, ৭৫ এর সিপাহী-জনতার অভ্যূত্থানের মহানায়ক কর্নেল আবু তাহের বীর উত্তমকে হত্যার ৪৪তম বার্ষিকীতে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদ কেন্দ্রীয় কার্যকরী কমিটির উদ্যোগে আজ ২১ জুলাই মঙ্গলবার সকাল ১১ টায় বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ কর্নেল তাহের মিলনায়তনে শহীদ কর্নেল তাহেরের প্রতিকৃতিতে মাল্যদান এবং আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। মাল্যদান শেষে দলীয় সভাপতি হাসানুল হক ইনু এমপির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন দলের সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার এমপি ও স্থায়ী কমিটির সদস্য অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালন করেন যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নাদের চৌধুরী। এসময় উপস্থিত ছিলেন জাসদের সহ-সভাপতি মীর হোসাইন আখতার, আফরোজা হক রীনা, নুরুল আখতার, সফি উদ্দিন মোল্লা, শ্রমিক জোটের সভাপতি সাইফুজ্জামান বাদশা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নাদের চৌধুরী, আব্দুল্লাহিল কাইয়ূম, রোকনুজ্জামান রোকন, মোঃ মোহসীন, নইমুল আহসান জুয়েল, ওবায়দুর রহমান চুন্নু, দফতর সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন, তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক কাজী সালমা সুলতানা, সদস্য এ বি এম জাকিরুল হক টিটন, সহ-দফতর সম্পাদক প্রকৌশলী হারুনুর রশীদ সুমন প্রমূখ।
জাসদ স্থায়ী কমিটির নেতৃবৃন্দ মাল্যদানের পর পুস্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন জাতীয় নারী জোটের আহ্বায়ক আফরোজা হক রীনা; জাতীয় শ্রমিক জোট-বাংলাদেশ এর সভাপতি সাইফুজ্জামান বাদশা, সাধারণ সম্পাদক নইমুল আহসান জুয়েল, সহ-সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সরদার খোরশেদ; জাতীয় যুব জোটের সভাপতি রোকনুজ্জামান রোকন ও সহ-সভাপতি কাজী সালমা সুলতানা; জাতীয় কৃষক জোটের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান ফসি, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় সংসদের সভাপতি আহসান হাবীব শামীম, সাধারণ সম্পাদক রাশিদুল হক ননী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ মিন্টু, সাংগঠনিক সম্পাদক গোপাল রাজ বংশী প্রমূখ।
সভাপতির ভাষণে হাসানুল হক ইনু এমপি বলেন, মহান দেশপ্রেমিক, মুক্তিযুদ্ধে সেক্টর কমান্ডার ও মৃত্যুঞ্জয়ী বীর, জাসদ নেতা, সমাজতান্ত্রিক বিপ্লবী, ৭৫ এর সিপাহী-জনতার অভ্যূত্থানের মহানায়ক কর্নেল আবু তাহের বীর উত্তমকে আজ থেকে ৪৪ বছর আগে সামরিক শাসক জিয়াউর রহমান মিথ্যা সাজানো মামলায় প্রহসনমূলক বিচারে ফাঁসি দিয়ে ঠান্ডা মাথায় খুন করেছিল। তিনি বলেন, গণবিরোধী রাষ্ট্র ব্যবস্থার পরিবর্তন করে সামজতান্ত্রিক রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার লক্ষ্য নিয়ে কর্নেল তাহের জাসদে যোগ দিয়েছিলেন। তিনি বলেন, কর্নেল তাহের যেমন মুক্তিযুদ্ধে জীবন বাজী রেখে লড়াই করেছেন ঠিক তেমনই ১৯৭৫ সালের ৭ নভেম্বর জাতির সংকটকালে সিপাহী-জনতার অভ্যূত্থানের মাধ্যমে গণবিরোধী রাষ্ট্র ব্যবস্থা পরিবর্তনের বিপ্লবী প্রচেষ্টা চালিয়েছিলেন। জাসদ আজও সেই লক্ষ্যেই রাজনীতি করছে। তিনি বলেন, গোটা বিশ^ ও বাংলাদেশ করোনা মোকাবেলা করছে। করোনা চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দিল পুঁজিবাদ-মুক্তবাজার অর্থনীতি-গণবিরোধী রাষ্ট্র ব্যবস্থার হাতে জনগণের ভাগ্য ছেড়ে দেয়া যায় না। জনাব ইনু বলেন, মুক্তবাজার অর্থনীতি-পুঁজিবাদ-মুনাফা বুঝে। মানুষ বুঝে না। মানুষকে অবহেলা-সমাজে বৈষম্য ছাড়া আর কিছুই দিতে পারে না। হাসানুল হক ইনু বলেন, গণবিরোধী রাষ্ট্র ব্যবস্থা ও মুক্তবাজার অর্থনীতি দুর্নীতিবাজ ও লুটেরা উৎপাদন পুনরুৎপাদনের কারখানা। জাসদ তাই গণবিরোধী রাষ্ট্র ব্যবস্থার পরিবর্তন করা, দুর্নীতি-বৈষম্যের অবসান করার লক্ষ্যে সুশাসন-সমাজতন্ত্র প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে সংগ্রাম করছে। রাষ্ট্র ব্যবস্থাকে গণমূখী ও মানবিক করার সংগ্রাম করছে। তিনি বলেন, আজ সময় এসেছে সংবিধানও পর্যালোচনা করা। তিনি বলেন, সর্বজনীন স্বাস্থ্যসেবা-সর্বজনীন শিক্ষা-সর্বজনীন খাদ্য নিরাপত্তা ব্যবস্থা চালুর বিকল্প নেই।
বার্তা প্রেরক
সাজ্জাদ হোসেন
দফতর সম্পাদক, জাসদ
০১৯১১৫৮৫৯৪৫, ০১৭১২৬৩৭৪৬৫