করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধে এগিয়ে যেসব দেশ

37
Social Share

করোনা (কোভিড-১৯) মহামারির বিরুদ্ধে লড়ে চলেছে বিশ্বের প্রতিটি দেশ। কিছু কিছু দেশ সেই লড়াইয়ে সাফল্য পেয়েছে। অনেক দেশ জয় থেকে এখনও অনেক দূরে। দেখে নিন কোন কোন দেশ করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ইতোমধ্যেই জয়ের কাছে পৌঁছে গেছে।

ইসরায়েল অনেক আগে থেকেই প্রায় করোনামুক্ত। মূলত দেশের প্রতিটি নাগরিককে টিকা দিয়েই এই অসাধ্য সাধন করে ফেলেছে দেশটি।

ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্যমতে, দেশটিতে ৫ জুন করোনায় সংক্রমিত হন মাত্র ২৭ জন। আর মারা যান একজন। এর আগের ২৪ ঘণ্টায় সাতজন  আক্রান্ত হন, মারা যান একজন। তবে এখন পর্যন্ত দেশটিতে মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৮ লাখ ৩৯ হাজার ৫৬৬ জন। এ ভাইরাসে মারা গেছেন ৬ হাজার ৪১৮ জন। সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৮ লাখ ৩২ হাজার ৯৩২ জন।

ইসরায়েলের পথে হেঁটে আরও বেশ কিছু দেশ করোনামুক্ত হওয়ার দোরগোড়ায় পৌঁছেছে। ২৪ ঘণ্টায় সেসব দেশে সংক্রমণ সংখ্যা খুবই নগণ্য।

ইউরোপেরদেশে বেলজিয়ামে ৬ জুন করোনায় মাত্র ৫ জন মারা গেছেন। সংক্রমিত হন মাত্র ১৪৬৭জন।

মধ্য এশিয়ার দেশ কাজাখস্তানে ৬ জুন দুপুর পর্যন্ত কোনো মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়নি। এর আগেরদিন ২০ জন মারা যান। আর আক্রান্ত হন ১১৮৯ জন।

দক্ষিণ আমেরিকার দেশ ইকুয়েডরে ৫ জুন ৬৯০ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। আর মারা গেছেন ১৮ জন।

এ ছাড়া আয়ারল্যান্ড, ইউরোপের ছোট দেশ মন্টেনেগ্রো, পশ্চিম আফ্রিকার দেশ ঘানা, ইউরোপের ফিনল্যান্ড,  মধ্য আফ্রিকার দেশ ক্যামেরুন, মধ্য আমেরিকার এল সালভাদরসহ বৎসোয়ানা, গ্যাবন, সুদান, কম্বোডিয়া, তাজিকিস্তান, কঙ্গো, দক্ষিণ সুদান, মালি, চাদ, গাম্বিয়া, নিকারাগুয়া, সান মেরিনো, সেন্ট লুসিয়া, বারবাডোজ, বারমুডা, সেন্ট মার্টিন, ডমিনিকা, পাপুয়া নিউ গিনি করোনা যুদ্ধে এগিয়ে আছে।

তাছাড়া দক্ষিণ প্রশান্ত মহাসাগরে অবস্থিত দ্বীপরাষ্ট্র তুভালু, মধ্য এশিয়ার দেশ তুর্কমেনিস্তান, ওশিয়ানিয়ার দ্বীপরাষ্ট্র তোঙ্গা, দক্ষিণ আটলান্টিক মহাসাগরে অবস্থিত সেন্ট হেলেনা-সহ বেশ কিছু দেশে মহামারি এখন পর্যন্ত তেমন প্রভাব ফেলতে পারেনি।