কঙ্গনা ছিলেন অবাঞ্ছিত শিশুকন্যা!

393
Social Share

বিতর্ক আর কঙ্গনা রানাউত যেন হাত ধরাধরি করে চলে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে করা তার বহু পোস্টেই বিতর্ক ছড়িয়েছে। তা সত্ত্বেও নিয়মিতই পোস্ট করেন বলিউডের আলোচিত এই অভিনেত্রী।

এবার টুইটারে করা এক পোস্টে কঙ্গনা দাবি করলেন, তিনি ছিলেন একজন অবাঞ্ছিত শিশুকন্যা! কিন্তু তা সত্ত্বেও তিনি তার কাজের মধ্যে নিজের প্রয়োজনীয়তাকে প্রমাণ করতে পেরেছেন।

রবিবার (২৮ মার্চ) সকালে টুইটারে তিনি লেখেন, ‘আমি ছিলাম একজন অবাঞ্ছিত শিশুকন্যা। আজ আমি সেরা ফিল্ম নির্মাতা, শিল্পী ও টেকনিশিয়ানদের সঙ্গে কাজ করি। অর্থ নয়, খ্যাতি নয়, আমি আমার কাজ ভালোবাসি। যখন দুনিয়া আমার দিকে তাকিয়ে বলে “এটা একমাত্র তুমিই করতে পারো”, আমি বুঝতে পারি আমি অবাঞ্ছিত হতে পারি, কিন্তু আমাকে দরকার ছিল। খুবই দরকার ছিল।’

এভাবেই কার্যত নিজের জীবনের এক গোপন ও চূড়ান্ত ব্যক্তিগত সত্যকে সবার সামনে তুলে ধরলেন কঙ্গনা। বরাবরই স্পষ্টবক্তা তিনি। তার সমালোচকরাও মানতে বাধ্য হন, যেকোনো বিষয়ে প্রতিক্রিয়ার পরোয়া না করেই মতামত দিয়ে ফেলেন তিনি। রোববার ফের নেটিজেনদের চমকে দিল তার টুইট।

এই মুহূর্তে নিজের ক্যারিয়ার নিয়ে খুবই ব্যস্ত কঙ্গনা। গত সোমবার (২২ মার্চ) জীবনের চতুর্থ জাতীয় পুরস্কার পেয়েছেন এই অভিনেত্রী। পরের দিনই তিনি প্রকাশ করেন বহু প্রতীক্ষিত ‘থালাইভি’ সিনেমার ট্রেলার। সেখানে তামিলনাডুর ‘আম্মা’ জয়ললিতার ভূমিকায় দেখা যাবে তাকে।

তবে এমন ব্যস্ততার মধ্যেও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সময়ের অভাব নেই তার। যেকোনো সমসাময়িক ইস্যুতেই মতামত দেন এই অভিনেত্রী। এর মধ্যে কৃষক আন্দোলন নিয়ে একটি টুইটকে ঘিরে সবচেয়ে বেশি বিতর্ক দেখা দিয়েছিল।