ওয়েবিনারে সুচিন্তার জঙ্গিবাদবিরোধী সেমিনার

239
Social Share
নিজস্ব প্রতিনিধি: ওয়েবিনারে সুচিন্তা ফাউন্ডেশনের ‘জাগো তারুণ্য রুখো জঙ্গিবাদ’ শীর্ষক জঙ্গিবাদবিরোধী কার্যক্রমের ২য় পর্ব ছিল বৃহস্পতিবার।
সুচিন্তা ফাউন্ডেশনের অফিসিয়াল ফেজবুক পেইজ থেকে সরাসরি সম্প্রচার করা হয় অনুষ্ঠানটি।
জঙ্গিবাদবিরোধী ওয়েবিনারে আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল এমপি, বাংলাদেশ পুলিশের ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি হাবিবুর রহমান বিপিএম (বার) পিপিএম (বার) এবং বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের সাবেক সদস্য ও শিক্ষাবিদ প্রফেসর ড. এম শাহ্ নওয়াজ আলি।
ওয়েবিনারে বঙ্গবন্ধুর অসাম্প্রদায়িক চেতনার নানা দিক উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল এমপি বলেন, ধারনা করা হতো একটি নির্দিষ্ট জায়গা থেকে জঙ্গিবাদের বিস্তার ঘটে কিন্তু হলি আর্টিজানের ভয়াবহ ঘটনার পর দেখা গেল পুরো উল্টো বিষয়টা। এখন সমাজের বিভিন্ন শ্রেনীর আধুনিক শিক্ষিত তরুনদের ব্রেন ওয়াশ করে জঙ্গিবাদের ভয়াবহতার দিকে ঠেলে দেওয়া হচ্ছে। এক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় ভূমিকা পালন করতে পারে পরিবার। অভিভাবকদের কাছ থেকে সঠিক শিক্ষা পেলে কোন সন্তানই ভুল পথে যেতে পারে না।
বাংলাদেশ পুলিশের ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি হাবিবুর রহমান বিপিএম (বার) পিপিএম (বার) জঙ্গিবাদ দমনে পুলিশের অবদান এবং সরকারের দিক-নির্দেশনাসহ নানা বিষয় তুলে ধরেন। তিনি বলেন, জঙ্গিবাদ দমনে পুলিশের আটটি ইউনিট কাজ করছে। পুলিশ দুইভাবে কাজ করে একটি প্রতিকারমূলক আরেকটি প্রতিরোধমূলক। আধুনিক বিশ্বে তথ্য প্রযুক্তি সহজলভ্যতার কারণে ইন্টানেটের মাধ্যমে জঙ্গিরা তাদের যোগাযোগ মেইনটেইন করে।সফলতার সঙ্গে জঙ্গিদের অনেক পরিকল্পনা ভেস্তে দিকে সক্ষম হয়েছে আমাদের চৌকষ অফিসাররা। তারা নিয়মিত কাজ করে যাচ্ছেন।
বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের সাবেক সদস্য ও শিক্ষাবিদ প্রফেসর ড. এম শাহ্ নওয়াজ আলি তার ৩৬ বছরের শিক্ষাকতা জীবনের নানা দিক তুলে ধরে বলেন, তরুণরাই নতুন নতুন সৃষ্টি করে; তাদের সৃষ্টিতেই এগিয়ে যায় একটি জাতি। বাংলাদেশ চিরকালই অসাম্প্রদায়িক চেতনা ধারণ করে। সব ধর্মের মানুষ এখানে মিলেমিশে থাকে। ‌’৭৫ পরবর্তী সময়ে এই অসাম্প্রদায়িকতার চেতনার উপর আঘাত শুরু হয়। আমি মনে করি সে সময় থেকেই বাংলাদেশে জঙ্গিবাদের উত্থান শুরু হয়।
আমাদের সমৃদ্ধ অতীতকে ধারণ করে বর্তমানের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। আমরা যারা অভিভাবক তাদের অনেক দায়িত্ব রয়েছে পরবর্তী প্রজন্মের জন্য।
ওয়েবিনারটি সঞ্চালনা করেন আজ সারাবেলা’র সম্পাদক জব্বার হোসেন।
উল্লেখ্য, অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ বিনির্মাণে তরুণদের জাগ্রতকরণ ও জঙ্গিবাদবিরোধী কার্যক্রম হিসেবে কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে প্রায় তিন বছর ধরে রাজধানীর বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সেমিনার করে আসছে সুচিন্তা ফাউন্ডেশন।