এর চেয়ে পাকিস্তানের ওপর পারমাণবিক বোমা নিক্ষেপ করলেও ভাল হতো : ইমরান

67
পাকিস্তানের
Social Share

শাহবাজ শরীফ সরকারের হাতে পাকিস্তানের ভবিষ্যত নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে অনাস্থা ভোট ক্ষমতাচ্যুত ইমরান খান বলেছেন, ‘এসব মানুষের কাছে ক্ষমতা তুলে দেয়ার চেয়ে পাকিস্তানের ওপর পারমাণবিক বোমা নিক্ষেপ করলেও ভাল হতো।’ গতকাল শুক্রবার পাকিস্তান তেহরিকে ইনসাফ (পিটিআই) দলের চেয়ারম্যান ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান সাংবাদিকদের এ কথা বলেন। খবর জিও নিউজের

পাকিস্তানের সেনাবাহিনী নিয়ে কথা বলতে গিয়ে তিনি আরও বলেন, এস্টাবলিশমেন্ট  (সেনাবাহিনীকে বুঝাতে এ শব্দটি ব্যবহার করেন রাজনীতিক বা সমালোচকরা) তাকে ফোন করছে, কিন্তু তাদের সঙ্গে কথা বলতে প্রস্তুত নন তিনি। তাই তাদের ফোন নাম্বার ব্লক করে দিয়েছেন বলেও দাবি করেছেন।

ইমরান বলেন, যতক্ষণ পর্যন্ত নির্বাচনের দিন ঘোষণা করা না হচ্ছে, ততদিন আমি কারও সঙ্গে কথা নয়। দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রকারীদের প্রতি সমর্থন দিয়েছেন যারা তাদের কি পাকিস্তানের ভবিষ্যত নিয়ে কোনো উদ্বেগ নেই! এসব মানুষের হাতে পাকিস্তানের দায়িত্ব দেয়ার চেয়ে পাকিস্তানের ওপর পারমাণবিক বোমা ফেললেও তা উত্তম হতো।

দুটি ইস্যু ছাড়া ক্ষমতার শেষ দিন পর্যন্ত এস্টাবলিশমেন্টের সঙ্গে সুসম্পর্ক ছিল দাবি করে তিনি আরও বলেন, প্রথমত শক্তিধর মহল মুখ্যমন্ত্রী পদ থেকে উসমান বুজদারকে সরিয়ে দিতে চেয়েছে। দ্বিতীয়ত লেফটেন্যান্ট জেনারেল ফয়েজ হামিদকে ইন্টার সার্ভিসেস ইন্টেলিজেন্সের প্রধান করা নিয়ে মতানৈক্য এস্টাবলিশমেন্টের সঙ্গে।

……………………………………………………………………………………

পাকিস্তানের সেনাবাহিনী নিয়ে কথা বলতে গিয়ে তিনি আরও বলেন, এস্টাবলিশমেন্ট  (সেনাবাহিনীকে বুঝাতে এ শব্দটি ব্যবহার করেন রাজনীতিক বা সমালোচকরা) তাকে ফোন করছে, কিন্তু তাদের সঙ্গে কথা বলতে প্রস্তুত নন তিনি। তাই তাদের ফোন নাম্বার ব্লক করে দিয়েছেন বলেও দাবি করেছেন।

ইমরান বলেন, যতক্ষণ পর্যন্ত নির্বাচনের দিন ঘোষণা করা না হচ্ছে, ততদিন আমি কারও সঙ্গে কথা নয়। দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রকারীদের প্রতি সমর্থন দিয়েছেন যারা তাদের কি ভবিষ্যত নিয়ে কোনো উদ্বেগ নেই! এসব মানুষের হাতে পাকিস্তানের দায়িত্ব দেয়ার চেয়ে ওপর পারমাণবিক বোমা ফেললেও তা উত্তম হতো।

দুটি ইস্যু ছাড়া ক্ষমতার শেষ দিন পর্যন্ত এস্টাবলিশমেন্টের সঙ্গে সুসম্পর্ক ছিল দাবি করে তিনি আরও বলেন, প্রথমত শক্তিধর মহল মুখ্যমন্ত্রী পদ থেকে উসমান বুজদারকে সরিয়ে দিতে চেয়েছে। দ্বিতীয়ত লেফটেন্যান্ট জেনারেল ফয়েজ হামিদকে ইন্টার সার্ভিসেস ইন্টেলিজেন্সের প্রধান করা নিয়ে মতানৈক্য এস্টাবলিশমেন্টের সঙ্গে।