এমপি হাবিবুর রহমান মোল্লা দলের দুঃসময়ে পার্টি অফিস পাহারা দিতেন

Social Share

প্রয়াত এমপি হাবিবুর রহমান মোল্লা ছিলেন নিরহঙ্কারী মানুষ। তিনি তিলে তিলে কৃষক-শ্রমিক ও মেহনতী মানুষদের দুয়ারে দুয়ারে গিয়ে নৌকার কর্মী-সমর্থক তৈরি করেছেন। দলের দুঃসময়ে পার্টি অফিস পাহারা দিতেন। এতে তাকে অনেক সময় বিভিন্ন বাধার সম্মুখীন হতে হয়েছে। কিন্তু তিনি কখনো পিছপা হন নাই। সফলতা নিয়েই ঘরে ফিরেছেন।

আজ সোমবার ঢাকা-৫ আসনের প্রয়াত এমপি বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ হাবিবুর রহমান মোল্লা’ র আত্মার মাগফেরাত কামনায় দোয়া মাহফিল ও স্মরণ সভায় উপস্থিত আওয়ামী লীগ নেতারা এসব কথা বলেন। এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে দনিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডেমরা থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও এমপি পুত্র মশিউর রহমান মোল্লা সজল। দনিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু বক্কর সিদ্দিক বাকেরের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ কৃষক লীগের সভাপতি আব্দুস সালাম বাবু, বিশেষ অতিথি ছিলেন বৃহত্তম ডেমরা থানা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি কৌশিক আহমেদ জসিম, যাত্রাবাড়ী থানা আওয়ামী লীগের ধর্ম সম্পাদক ওয়াসিউদ্দিন নুরানীসহ আওয়ামী লীগের ওয়ার্ড ও ইউনিয়নের নেতাকর্মীরা। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন দনিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা আবদুর রউফ। এসময় উপস্থিত ছিলেন বৃহত্তম ডেমরা থানা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও এমপি পুত্র মাহফুজুর রহমান মোল্লা শ্যামল।

ওয়াসিউদ্দিন নুরানী যাত্রাবাড়ি থানা আওয়ামী লীগের ধর্মবিষয় সম্পাদক বলেন, হাবিবুর রহমান মোল্লা ছিলেন ঢাকা-৫ আসনের মাটি ও মানুষের নেতা। তার বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবনে কখনো কারো ক্ষতি করেননি। যতটুকু পেরেছেন এই এলাকার মানুষের উপকার করার চেষ্টা করেছেন। তাই সবাই উনাকে নিয়ে গর্ববোধ করি। এই আসনে প্রয়াত এমপি হাবিবুর রহমান মোল্লার সুযোগ্য সন্তান মশিউর রহমান মোল্লা সজলকে এই আসনে মনোনয়ন দেয়ার জন্য নেত্রীর কাছে আহবান জানাই।

ধনিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু বক্কর সিদ্দিক বাকের বলেন, পিতার সুযোগ্য উত্তরসূরী বড় ছেলে মশিউর রহমান মোল্লা সজলই পারে ঢাকা-৫ আসনের মানুষের সেবা করতে। আমরা আসন্ন উপনির্বাচনে ঢাকা-৫ এ সজলের হাতেই নৌকা দেখতে চাই।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ কৃষক লীগের সভাপতি আব্দুস সালাম বাবু বলেন, হাবিবুর রহমান মোল্লার হাাত ধরে ঢাকা -৫ নির্বাচনী এলাকার দেশজুড়ে একটি মডেল এলাকা হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছিল। আজকে তিনি আমাদের মাঝে নেই, কিন্তু ঢাকা-৫ নির্বাচনী এলাকার প্রতিটি পাড়া মহল্লায় তার উন্নয়নের ছোঁয়া লেগে আছে। তাই গুনী এই এমপির অসমাপ্ত উন্নয়নমূলক কাজ সমাপ্ত করার লক্ষ্যে মশিউর রহমান মোল্লা সজলকে নৌকার মনোনয়ন দেয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিকট আমরা অনুরোধ জানাচ্ছি।

বৃহত্তর ডেমরা থানা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি কৌশিক আহমেদ জসিম বলেন, এমপি হাবিবুর রহমান মোল্লা ছিলেন নিরহঙ্কারী মানুষ। তিনি তিলে তিলে কৃষক-শ্রমিক ও মেহনতী মানুষদের দুয়ারে দুয়ারে গিয়ে নৌকার কর্মী-সমর্থক তৈরি করেছেন।

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মশিউর রহমান সজল বলেন, আমার বাবা সারাজীবন আওয়ামী লীগ, বঙ্গবন্ধু ও জননেত্রী শেখ হাসিনার আদের্শ নিদের্শ পালন করেছেন। তিনি শুধু আওয়ামী লীগই নয়, ছিলেন প্রত্যাখ্যাত শ্রমিক নেতা। শ্রমজীবী মানুষের কল্যাণে সারাজীবন কাজ করেছেন। আমার নেত্রী বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যদি আমাকে মনোনয়ন দেন তাহলে পিতার অসমাপ্ত কাজগুলো সমাপ্ত করবো। শুধু মনোনয়ন নয়, যে কোনো সময় পিতার মতোই এই এলাকার মানুষের পাশে থাকতে চাই। সেবা করতে চাই।