এথেন্স এথনোগ্রাফিক থেকে ডাক পেল ‘হাউস অফ লাইট’

94
Social Share

এথেন্স এথনোগ্রাফিক ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল থেকে ডাক পেল ‘হাউস অফ লাইট’
মাহমুদ হাসান কায়েশের চলচ্চিত্র ‘হাউস অফ লাইট’কে ১২তম এথেন্স এথনোগ্রাফিক ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে প্রদর্শনের জন্য মনোনীত করেছে জুরিবোর্ড। ২৫ নভেম্বর শুরু হবে এই উৎসব, চলবে ৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত। দৃশ্যমাধ্যমে নৃবিজ্ঞানের প্রচার-প্রসার উৎসাহিত করতে ২০১১ সাল থেকে এই উৎসব অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এর আগে যুক্তরাজ‍্যের ওয়ান ওয়ার্ল্ড মিডিয়া অ্যাওয়ার্ডস এবং নাহেমি ক্যানন শর্টফিল্ম ফেস্টিভ্যালেও মনোনয়ন পেয়েছিল ‘হাউস অফ লাইট’।


‘হাউস অফ লাইট’ একটি পরিবারের দৈনন্দিন জীবনের অন্তরঙ্গ প্রতিকৃতি। করোনাকালে ঢাকায় একটি অ্যাপার্টমেন্টে পরিবারের সঙ্গে স্বেচ্ছাবন্দী জীবন কাটানোর সময় ছবিটি ধারণ করেন মাহমুদ হাসান। পুরো ছবিটি তাঁর মুঠোফোনে ধারণ করেন পরিচালক। রোজার মাসে ছবিটির শুটিং হয়েছিল।

যুক্তরাজ‍্যের ইউনিভার্সিটি অব দ‍্য ওয়েস্ট অব স্কটল্যান্ড থেকে চলচ্চিত্র নির্মাণের ওপর স্নাতকোত্তর করেছেন মাহমুদ হাসান কায়েশ। তাঁর সম্পাদিত শর্টফিল্ম ‘ইজ ইট মি?’ সম্প্রতি ব্রিটিশ কাউন্সিলের ডিরেক্টরিতে তালিকাভুক্ত হয়েছে। এ ছাড়া ফিল্মটি স্কটিশ মানসিক স্বাস্থ্য শিল্প উৎসবে পুরস্কার জিতেছে।
বাংলাদেশে মাহমুদ হাসান কায়েশ এখন পূর্ণকালীন শিক্ষক হিসেবে ইন্ডিপেনডেন্ট ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশের মিডিয়া অ্যান্ড কমিউনিকেশন বিভাগে দায়িত্ব পালন করছেন।

এথেন্স এথনোগ্রাফিক ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল থেকে ডাক পেল ‘হাউস অফ লাইট’
মাহমুদ হাসান কায়েশের চলচ্চিত্র ‘হাউস অফ লাইট’কে ১২তম এথেন্স এথনোগ্রাফিক ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে প্রদর্শনের জন্য মনোনীত করেছে জুরিবোর্ড। ২৫ নভেম্বর শুরু হবে এই উৎসব, চলবে ৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত। দৃশ্যমাধ্যমে নৃবিজ্ঞানের প্রচার-প্রসার উৎসাহিত করতে ২০১১ সাল থেকে এই উৎসব অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এর আগে যুক্তরাজ‍্যের ওয়ান ওয়ার্ল্ড মিডিয়া অ্যাওয়ার্ডস এবং নাহেমি ক্যানন শর্টফিল্ম ফেস্টিভ্যালেও মনোনয়ন পেয়েছিল ‘হাউস অফ লাইট’।

‘হাউস অফ লাইট’ একটি পরিবারের দৈনন্দিন জীবনের অন্তরঙ্গ প্রতিকৃতি। করোনাকালে ঢাকায় একটি অ্যাপার্টমেন্টে পরিবারের সঙ্গে স্বেচ্ছাবন্দী জীবন কাটানোর সময় ছবিটি ধারণ করেন মাহমুদ হাসান। পুরো ছবিটি তাঁর মুঠোফোনে ধারণ করেন পরিচালক। রোজার মাসে ছবিটির শুটিং হয়েছিল।

যুক্তরাজ‍্যের ইউনিভার্সিটি অব দ‍্য ওয়েস্ট অব স্কটল্যান্ড থেকে চলচ্চিত্র নির্মাণের ওপর স্নাতকোত্তর করেছেন মাহমুদ হাসান কায়েশ। তাঁর সম্পাদিত শর্টফিল্ম ‘ইজ ইট মি?’ সম্প্রতি ব্রিটিশ কাউন্সিলের ডিরেক্টরিতে তালিকাভুক্ত হয়েছে। এ ছাড়া ফিল্মটি স্কটিশ মানসিক স্বাস্থ্য শিল্প উৎসবে পুরস্কার জিতেছে।
বাংলাদেশে মাহমুদ হাসান কায়েশ এখন পূর্ণকালীন শিক্ষক হিসেবে ইন্ডিপেনডেন্ট ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশের মিডিয়া অ্যান্ড কমিউনিকেশন বিভাগে দায়িত্ব পালন করছেন।