একটি সুবিধাবাদী দল ধর্মকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করছে : নানক

36
Social Share

জাতির পিতার আদর্শ ও চেতনাকে নষ্ট করে মানুষের মাঝে দ্বন্দ্ব-বিবাদ সৃষ্টি করতে একটি সুবিধাবাদী দল ধর্মকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করছে মন্তব্য করে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেছেন, ‘বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ছিল দেশে একটি অসাম্প্রদায়িক সমাজ ব্যবস্থা গড়ে তোলা, যেখানে সকলেই মিলেমিশে সুখে ও শান্তিতে বসবাস করবে। প্রত্যেকে নির্বিঘ্নে নিজ নিজ ধর্ম পালন করবে। একটি সুবিধাবাদী দল ধর্মকে অস্ত্র  হিসেবে ব্যবহার করে মানুষের মাঝে বিভেদ সৃষ্টি করছে। এটি আর হতে দেওয়া যাবে না।’

মঙ্গলবার (৩০ মার্চ) রাতে কক্সবাজারের রামু উপজেলার চৌমুহনী স্টেশনে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষ্যে ‘মুক্তিযুদ্ধের ঐক্য’ কক্সবাজার জেলা শাখা আয়োজিত মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মাননা ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

কোন অনুপ্রবেশকারীকে দলে ঠাঁই দেওয়া হবে না জানিয়ে নানক বলেন ‘যারা বিএনপি-জামায়াত থেকে আওয়ামী লীগে ঢুকে পড়েছে তাদেরকে ঘাড় ধরে বের করে দেওয়া হবে। এমনকি অনুপ্রবেশকারীদের দলে ঢুকতে সহযোগিতাকারীদেরও চিহ্নিত করা হবে।’

তিনি আরো বলেন, শেখ হাসিনার কঠোর নেতৃত্বে ঐক্যের মাধ্যমে বাংলাদেশের মানুষের ভোট ও ভাতের অধিকার ছিনিয়ে এনেছেন। রাষ্ট্র যখন এগিয়ে যাচ্ছে বিএনপি-জামায়াত নতুন করে ষড়যন্ত্র শুরু করছে। তারা মানুষের ঘর ও মন্দির পুড়িয়ে দিচ্ছে। বাংলাদেশে নির্বাচন প্রতিহতের নামে অগ্নি সংযোগের নামে মানুষ পুড়িয়েছে। ওরা এখন আমাদের ভেতর ঢুকে বিবাদ সৃষ্টি করছে। এদের ছাড় দেওয়া হবে না।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন কক্সবাজার পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও মুক্তিযুদ্ধের ঐক্য’র জেলা আহবায়ক মো. নজিবুল ইসলাম। এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য ডা. কামরুল হাসান খান, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক হাসান আরিফ, কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র মুজিবুর রহমান, মহেশখালী-কুতুবদিয়া আসনের সংসদ সদস্য আশেক উল্লাহ রফিক প্রমুখ।