উগ্রবাদী টিএলপির প্রধান সাদ রিজভীকে মুক্তি দিতে বাধ্য হলো পাকিস্তান

105
উগ্রবাদী
Social Share

অবশেষে উগ্রবাদী ইসলামী নেতা সাদ হোসাইন রিজভিকে মুক্তি দিতে বাধ্য হয়েছে পাকিস্তান সরকার। তিনি তেহরিক-ই-লাব্বাইক পাকিস্তান (টিএলপি) দলের প্রধান। দীর্ঘদিন তিনি লাহোর জেলে বন্দি ছিলেন। বৃহস্পতিবার (১৮ নভেম্বর) এসব জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স।

প্রতিবেদনে বলা হয়, রিজভীর আইনজীবী মোহাম্মদ রিজওয়ান বলেছেন, ‘আল্লাহর দয়ায় তিনি এখন মুক্ত।’ এর আগে, গত বছর ফ্রান্স বিরোধী বিক্ষোভের সময় গ্রেফতার হন টিএলপি নেতা সাদ রিজভি। তার মুক্তির দাবিতে গত ২২ অক্টোবর লাহোর থেকে ইসলামাবাদ অভিমুখে ‘লং মার্চ’ শুরু করে হাজার হাজার টিএলপি সমর্থক। এছাড়া তারা শার্লি হেবদো ম্যাগাজিনে নবী মোহাম্মদ (সা) এর ব্যাঙ্গাত্মক ছবি প্রকাশ করায় ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূতকে পাকিস্তান থেকে বহিষ্কারের দাবিও তোলে তারা।

লং মার্চে বিভিন্ন পয়েন্টে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়ায় টিএলপি সমর্থকেরা। এতে অন্তত সাত পুলিশ কর্মকর্তা এবং চার বিক্ষোভকারী নিহত হয়েছে। এছাড়া বহু মানুষ আহত হয়েছে। পরে টানা দশদিন বিক্ষোভের পর নভেম্বরের শুরুতে টিএলপির সঙ্গে চুক্তি করতে বাধ্য হয় ইমরান খানের সরকার। এরপরই মুক্তি পেলেন সাদ রিজভী।

অবশেষে উগ্রবাদী ইসলামী নেতা সাদ হোসাইন রিজভিকে মুক্তি দিতে বাধ্য হয়েছে পাকিস্তান সরকার। তিনি তেহরিক-ই-লাব্বাইক পাকিস্তান (টিএলপি) দলের প্রধান। দীর্ঘদিন তিনি লাহোর জেলে বন্দি ছিলেন। বৃহস্পতিবার (১৮ নভেম্বর) এসব জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স।

প্রতিবেদনে বলা হয়, রিজভীর আইনজীবী মোহাম্মদ রিজওয়ান বলেছেন, ‘আল্লাহর দয়ায় তিনি এখন মুক্ত।’ এর আগে, গত বছর ফ্রান্স বিরোধী বিক্ষোভের সময় গ্রেফতার হন টিএলপি নেতা সাদ রিজভি। তার মুক্তির দাবিতে গত ২২ অক্টোবর লাহোর থেকে ইসলামাবাদ অভিমুখে ‘লং মার্চ’ শুরু করে হাজার হাজার টিএলপি সমর্থক। এছাড়া তারা শার্লি হেবদো ম্যাগাজিনে নবী মোহাম্মদ (সা) এর ব্যাঙ্গাত্মক ছবি প্রকাশ করায় ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূতকে পাকিস্তান থেকে বহিষ্কারের দাবিও তোলে তারা।

লং মার্চে বিভিন্ন পয়েন্টে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়ায় টিএলপি সমর্থকেরা। এতে অন্তত সাত পুলিশ কর্মকর্তা এবং চার বিক্ষোভকারী নিহত হয়েছে। এছাড়া বহু মানুষ আহত হয়েছে। পরে টানা দশদিন বিক্ষোভের পর নভেম্বরের শুরুতে টিএলপির সঙ্গে চুক্তি করতে বাধ্য হয় ইমরান খানের সরকার। এরপরই মুক্তি পেলেন সাদ রিজভী।

লং মার্চে বিভিন্ন পয়েন্টে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়ায় টিএলপি সমর্থকেরা। এতে অন্তত সাত পুলিশ কর্মকর্তা এবং চার বিক্ষোভকারী নিহত হয়েছে। এছাড়া বহু মানুষ আহত হয়েছে। পরে টানা দশদিন বিক্ষোভের পর নভেম্বরের শুরুতে টিএলপির সঙ্গে চুক্তি করতে বাধ্য হয় ইমরান খানের সরকার। এরপরই মুক্তি পেলেন সাদ রিজভী।