ইয়ান বোথামের ৩৫ বছরের রেকর্ড ভাঙলেন শার্দুল ঠাকুর

61
Social Share

ওভালে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে সিরিজের চতুর্থ টেস্টে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে ভারত। কিন্তু ভারতের ব্যাটিং বিপর্যয় নিয়ে যতই কথা হোক না কেন শার্দুল ঠাকুর কিন্তু এগিয়ে। ওভালে ৩১ বলে হাফসেঞ্চুরি করে নজর কেড়ে নিয়েছেন তিনি। সেই সঙ্গে ইংল্যান্ডের মাঠে ইয়ান বোথামের ৩৫ বছরের পুরানো দ্রুততম হাফসেঞ্চুরির রেকর্ড ভেঙে দিয়েছেন তিনি।

১৯৮৬ সালে ওভালে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে ৩২ বলে হাফসেঞ্চুরি করেছিলেন বোথাম। আবার রেকর্ডের দিকে তাকালে শার্দুলের এই ফিফটি টেস্টে ভারতের দ্বিতীয় দ্রুততম। ১৯৮২ সালে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে করাচিতে কপিল দেব ৩০ বলে হাফসেঞ্চুরি করেছিলেন।

শেষ পর্যন্ত ৩৬ বলে ৫৭ করে আউট হয়ে যান শার্দুল। নিজের দুরন্ত ইনিংস নিয়ে ভারতীয় এই বোলিং অলরাউন্ডার বলেছেন, ইংলিশ কন্ডিশনে সোজা ব্যাটে যত বেশি খেলা যাবে, তত রান আসবে। তার কারণ হল-, বল ভীষণ সুইং করে। তাই সোজা ব্যাটে খেললে লাভ বেশি হয়। আমার কোচেরা বলেছেন, যত বেশি সম্ভব এখানে সোজা ব্যাটে খেলতে, যাতে টিমকে রান দিতে পারি।

এর আগে অস্ট্রেলিয়াতেও রান পেয়েছেন শার্দুল। চোটের কারণে আগের দু’টি টেস্ট খেলতে পারেননি। তিনি যে ফর্মে আছেন, সেটা প্রথম দিনই বুঝিয়ে দিয়েছেন। বিশেষ করে ভারতীয় টপ অর্ডার একদমই ফর্মে নেই। রোহিত, রাহুল, পূজারা, রাহানেরা আবার ব্যর্থ। ঋষভ পন্থও রান পাননি। এই পরিস্থিতিতে বিরাট কোহলি একটা হাফসেঞ্চুরি করেছেন। লিডসের বিপর্যয় যখন দেখতে পাচ্ছিলেন অনেকে, তখন নিজেকে মেলে ধরেছিলেন শার্দুল।

তরর কথায়,  পেস বোলার হই আর ব্যাটসম্যান, দায়িত্ব নিতেই হবে। ভারতের হয়ে খেলার সুযোগ পেলে নিজের সেরাটা সব সময়ই দিতে হবে। সেই চেষ্টাই করেছি। আমি চ্যালেঞ্জ নিতে ভালোবাসি। যখনই ব্যাট করতে যাই না কেন, এমন কিছু করার চেষ্টা করি, যাতে আমার টিমের জয়ের দরজাটা খুলে যায়।