ইসলাম এর বিরুদ্ধে কোনও কথা ঘুর্ণাক্ষরেও বলিনিঃ ডা. মুরাদ

103
ইসলাম
Social Share

ইসলাম ধর্মের বিরুদ্ধে যায় এমন কোনো কথা বলেননি বলে দাবি করেছেন তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. মুরাদ হাসান।
তিনি বলেছেন, ইসলাম ধর্মের বিরুদ্ধে যায় এমন কোনও কথা আমি ঘুর্ণাক্ষরেও বলিনি, বলতে পারি না।

শনিবার (৬ নভেম্বর) বিকালে জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলা পরিষদ চত্বরে ওলামা ও ইমামদের সংগে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এই কথা বলেন।

পারিবারিক অবস্থান তুলে ধরে মুরাদ হাসান বলেন, ডা. মুরাদ হাসান-এর বাবার নাম বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট মতিয়র তালুকদার। যিনি একজন খাঁটি মুসলমান ছিলেন। যিনি পাঁচ ওয়াক্ত নামায পড়তেন। যিনি মসজিদ-মাদরাসা নির্মাণ করেছেন। অন্যান্য ধর্মাবলম্বীদের দেখলে শ্রদ্ধা করতেন। এটা আমরা যেন ভুলে না যাই।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা উপমা ফারিসার সভাপতিত্বে সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা গিয়াস উদ্দিন পাঠান, জেলা আওয়ামী লীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক জহুরুল ইসলাম মানিক, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এমএ লতিফ ও মুস্তাফিজুর রহমান শাহজাদাসহ অনেকে।

ইসলাম ধর্মের বিরুদ্ধে যায় এমন কোনো কথা বলেননি বলে দাবি করেছেন তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. মুরাদ হাসান।
তিনি বলেছেন, ইসলাম ধর্মের বিরুদ্ধে যায় এমন কোনও কথা আমি ঘুর্ণাক্ষরেও বলিনি, বলতে পারি না।

শনিবার (৬ নভেম্বর) বিকালে জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলা পরিষদ চত্বরে ওলামা ও ইমামদের সংগে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এই কথা বলেন।

পারিবারিক অবস্থান তুলে ধরে মুরাদ হাসান বলেন, ডা. মুরাদ হাসান-এর বাবার নাম বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট মতিয়র তালুকদার। যিনি একজন খাঁটি মুসলমান ছিলেন। যিনি পাঁচ ওয়াক্ত নামায পড়তেন। যিনি মসজিদ-মাদরাসা নির্মাণ করেছেন। অন্যান্য ধর্মাবলম্বীদের দেখলে শ্রদ্ধা করতেন। এটা আমরা যেন ভুলে না যাই।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা উপমা ফারিসার সভাপতিত্বে সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা গিয়াস উদ্দিন পাঠান, জেলা আওয়ামী লীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক জহুরুল ইসলাম মানিক, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এমএ লতিফ ও মুস্তাফিজুর রহমান শাহজাদাসহ অনেকে।