ইসলামিক মৌলবাদ রুখতে বিল আনছে ফ্রান্স সরকার

Social Share

প্যারিস: ক্লাসে হজরত মহম্মদের ব্যঙ্গচিত্র নিয়ে আলোচনা করার অপরাধে খুন হতে হল এক স্কুল শিক্ষককে। এমনই নৃশংস ঘটনা ঘটেছে ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে। ওই শিক্ষককে ছুরি দিয়ে মুণ্ডচ্ছেদ করে খুন করেছে আততায়ী। পরে ওই খুনিকে গুলি করে খতম করেছে পুলিশ।

সংবাদসংস্থা পিটিআই জানিয়েছে, এই ঘটনার পর ওই স্কুলে যান ফরাসি প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল মাক্রোঁ। কথা বলেন ওই স্কুলের শিক্ষকদের সঙ্গে। এই ঘটনাকে ‘ইসলামিক জঙ্গি আক্রমণ’ বলে নিন্দা করেছেন তিনি।

এদিকে, ভয়ঙ্কর এই ঘটনার পরে ইসলামিক মৌলবাদের বিরুদ্ধে নড়েচড়ে বসলো ফ্রান্স সরকার। ইসলামিক মৌলবাদ রুখতে একটি বিল আনছে ফরাসি সরকার।

ওই খুনির মেয়ে ওই শিক্ষকের ক্লাসে উপস্থিত ছিল। ক্লাসে হজরত মহম্মদের ব্যঙ্গচিত্র নিয়ে আলোচনা করায় শিক্ষকের আচরণে হতভম্ব হয়ে গিয়েছিল খুনির মেয়ে। ক্ষোভে-রাগে আততায়ী আল্লাহু আকবর স্লোগান দিয়ে ওই শিক্ষকের উপর ঝাপিয়ে পড়ে।

ইসলামিক মৌলবাদের ঘটনা এর আগেও সামনে এসেছে। এর আগে ২০১৫ সালে শার্লি এবদো ম্যাগাজিনে মহম্মদের ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশ করা হয়েছিল। যার প্রতিবাদে ওই ম্যাগাজিনের নিউজরুমে ঢুকে নির্বিচারে গণহত্যা চালিয়েছিল জঙ্গিরা। এবার ফের ইসলামিক মৌলবাদের শিকার হতে হল এক শিক্ষককে।

উল্লেখ্য, ফ্রান্সের মুসলিম জনসংখ্যা প্রায় ৫০ লাখ। যা পশ্চিম ইউরোপের দেশগুলির মধ্যে সর্বোচ্চ। জনসংখ্যার নিরিখে ইসলাম ফ্রান্সের দ্বিতীয় বৃহত্তম ধর্ম।