ইসলামকে ‘ক্যান্সার’ বলার জেরে যুক্তরাষ্ট্রে ডেপুটি মেয়রের পদত্যাগ

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের নিউ জার্সির হান্টারডন কাউন্টির রারিটান শহরের ডেপুটি মেয়র ল্যুই রেইনার তার ফেসবুক পেইজে ইসলাম ধর্ম সম্পর্কে অবমাননামূলক মন্তব্য করেন। তিনি সেখানে ইসলামকে ‘ক্যান্সার’ হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন। চলতি সপ্তাহে টাউনশিপ কমিটি তার ওই পোষ্টের নিন্দা জানিয়েছেন। এক পর্যায়ে ওই ডেপুটি মেয়র পদত্যাগ করতে বাধ্য হন।

জানা গেছে, রেইনার তার ফেসবুক পেইজে একটি পোষ্টে ইসলামকে ‘ক্যান্সার’ হিসেবে আখ্যায়িত করে বলেছেন, ‘অবশ্যই এর (ইসলামের) রেডিয়েশনের মাধ্যমে চিকিতসা করা দরকার’।

জানা গেছে, ফেলো কমিটি মেম্বার ডেপুটি মেয়র হিসেবে ল্যুই রেইনারের স্থলাভিষিক্ত হবেন।  নির্বাচিত কমিটি মঙ্গলবার এ সংক্রান্ত একটি রেস্যুলেশন পাশ করেছে।

তবে এই কমিটির সদস্য হিসেবে বহাল থাকবেন ল্যুই রেইনার। ২০২০ সালের শেষ নাগাদ  মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়ার আগ পর্যন্ত তিনি কমিটির সদস্য হিসেবে নিয়োজিত থাকবেন

ডেপুটি মেয়রের ভূমিকা থেকে রেইনারের পদত্যাগ গ্রহণ করার পাশাপাশি কমিটি রাইনারকে তার অবমাননাকর, বৈষম্যমূলক ও আপত্তিকর  বক্তব্যটি সেন্সর করার একটি প্রস্তাবও পাস করেছিল। কমিটি তাঁকে অনুরোধ করেছে, তিনি পুরোপুরি টাউনশিপ কমিটি থেকে পদত্যাগ করবেন।

রেইনার ব্যতীত কমিটির সকল সদস্য প্রকাশ্যে এই মন্তব্যের জন্য ক্ষমা চেয়েছেন। তারা এ সংক্রান্ত প্রস্তাবটি পাস করার পক্ষে ভোট দিয়েছেন।

এদিকে, ডেমোক্র্যাটিক ক্লাব টাউনশিপ কমিটির কাছে রারিতান টাউনশিপ একটি চিঠি লিখে রেইনারকে তার কুৎসিত বক্তব্য প্রত্যাহার এবং মুসলিম সম্প্রদায়ের কাছে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানিয়েছে।

ওই চিঠিতে লেখা আছে, এ ধরনের ঘৃণামূলক বক্তব্য আমাদের জাতিকে বিভক্ত করছে। এটি একটি নিন্দনীয় কাজ। এ ধরনের বক্তব্য ধর্মীয় বিভাজন সৃষ্টি করবে।

সূত্র : এনজে ডট কম