ইতিহাসের হাজারতম টি-টোয়েন্টি ম্যাচে মুখোমুখি বাংলাদেশ-ভারত

ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটের বয়স কম হলেও ইতিমধ্যেই একে একে পেরিয়ে গিয়েছে ৯৯৯টি ম্যাচ। আজ ১০০০তম ম্যাচে মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ-ভারত। এমন একখানা মাইলফলকের সামনে দাঁড়িয়ে আজকের টি-টোয়েন্টি। তবে দিল্লির দূষণ যেন যাবতীয় উন্মাদনার উপর কুয়াশা ঘিরে রেখেছে। দিল্লির দৃশ্যমানতা নিয়ে সমস্যা। চারিদিকে ধোঁয়া, ধূলো। এমন পরিবেশে ম্যাচ! গৌতম গম্ভীরের মতো অনেকেই আজকের ভারত-বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি ম্যাচ বাতিল করার দাবি তুলেছিলেন। কিন্তু ম্যাচ হচ্ছে!

দর্শকদের মনোরঞ্জন দেওয়ার উদ্দেশ্য ২০০৫ সালের ১৭ ফেব্রুয়ারি পথ চলা শুরু হয়েছিল টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের। তারপর দেখতে দেখতে ৯৯৯টি ম্যাচ! প্রথম ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড। আর হাজারতম ম্যাচে আজ মুখোমুখি হবে ভারত-বাংলাদেশ। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে সব থেকে বেশি ম্যাচ খেলেছে পাকিস্তান। জিতেছেও তারা সব থেকে বেশি। তারা খেলেছে ১৪৭টি ম্যাচ। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে ১০০টির বেশি ম্যাচ খেলেছে আরও সাতটি দল। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে সব থেকে বেশি ম্যাচ হেরেছে শ্রীলঙ্কা।

উল্লেখ্য, টেস্ট ক্রিকেটের হাজারতম ম্যাচ হয়েছিল ১০৭ বছর পর। প্রথম টেস্ট হয় ১৮৭৭ সালে। হাজারতম টেস্ট ম্যাচ হয়েছিল ১৯৮৪ সালে। ১৯৭১ সালে প্রথমবার ওয়ানডে ক্রিকেট ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছিল। প্রথম ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়া। এর পর একদিনের ক্রিকেটে হাজারতম ম্যাচ হয় ১৯৯৫ সালে। অর্থাৎ ১০০০ ম্যাচ গড়াতে লেগে গিয়েছিল ২৪ বছর। তবে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের ক্ষেত্রে ১০০০ ম্যাচ হচ্ছে ১৪ বছরের মাথায়। এই ছোট্ট পরিসংখ্যানই টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের চাহিদা ও জনপ্রিয়তা বোঝানোর পক্ষে যথেষ্ট।