আমাদের সৈনিক মেরেছে ভারত, আমরা যুদ্ধ চাই না কিন্তু দুর্বল নয়: চাইনিজ মিডিয়ার সম্পাদক

Social Share

বেশকিছু সপ্তাহ ধরে ভারত ও চীনের মধ্যে যে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছিল। তা প্রায় মিটমাট হওয়ার মুখেই ছিল। সেনা প্রধান কয়েকদিন আগেই জানিয়েছিলেন, সীমান্তের পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। যেহেতু দুই দেশের মধ্যে বৈঠকের আয়োজন করা হয়েছিল, সেই পরিপেক্ষিতে মনে করা হচ্ছিল পরিস্থিতি আবার স্বাভাবিক হয়ে উঠবে। তবে বৈঠক শেষ হওয়ার পর চীনের সেনা নিজের স্থানে ফিরে যেতে অস্বীকার করে।

একইসাথে ভারতীয় সেনার একটি দলকে ধোঁকাবাজি করে ঘিরে আক্রমন করে দেয়। যার দরুন দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের সৃষ্টি হয়। সংঘর্ষে ভারতের ২০ জন জওয়ান শহীদ হন অন্যদিকে ভারতীয় সেনার পাল্টা আক্রমণে চীনের প্রায় ৪৩ জন জওয়ান মারা পড়ে।

চীনের ঠিক কতজন জওয়ান মারা পড়েছে সেই ব্যাপারে চীন তথ্য গোপন করেছে। এমনকি চীন নিজেও এই তথ্য গোপনের বিষয়টি স্বীকার করেছে। গ্লোবাল টাইমসের এডিটর হু জিজিং বলেছেন, ‘ভারতীয় পক্ষের বেশি অহংকারী হওয়া উচিত নয়। আমরা যুদ্ধঃ চাই না কিন্তু আমরা ভয় পায় না। জিজিং আরো বলেছেন, আমরা জওয়ানদের সংখ্যা প্রকাশ করে জনগণের মুড আক্রোশিত করতে চাই না। এটা বেজিংয়ের ভালো ব্যাবহারের পরিচয়।’

স্পষ্টতই, চীনের কতজন সেনা মারা পড়েছে তার সংখ্যা প্রকাশ হলে চীনের সরকারের মুখ পুড়বে। যা হংকং এর গৃহযুদ্ধঃকে উস্কে দিতে পারে। তবে বিভিন্ন দেশের ইন্টেলিজেন্স রিপোর্ট অনুযায়ী চীনের প্রায় ৩৫ থেকে ৫০ জন সৈনিক মারা পড়েছে।