আবরারের রুমমেট মিজান পাঁচ দিনের রিমান্ডে

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার তার রুমমেট মিজানুর রহমান ওরফে মিজানকে পাঁচ দিনের রিমান্ডে পাঠানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আজ বুধবার ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালত রিমান্ডে নেওয়ার এই আদেশ দেন।

বুধবার মিজানকে কারাগার থেকে আদালতে হাজির করা হয়। অন্যদিকে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডিবির পরিদর্শক মো. ওয়াহিদুজ্জামান দশ দিনের রিমান্ডের আবেদন জানান। মহানগর হাকিম বাকী বিল্লাহ শুনানি শেষে পাঁচ দিন মঞ্জুর করেন। মিজানের পক্ষে কোনো আইনজীবী ছিলেন না।

তদন্ত কর্মকর্তা রিমান্ড আবেদনে উল্লেখ করেন, আসামিকে আবরার হত্যার ঘটনায় জড়িত আছে সন্দেকে গ্রেপ্তার করা হয়। তিনি নিহত আবরারের একই কক্ষে বাস করতেন। আবরার হত্যার ঘটনার পর তার ভূমিকা রহস্যজনক। তিনি আবরারের হত্যার ঘটনার সঙ্গে জড়িত আছেন কি-না সে সম্পর্কে জিজ্ঞাসাবাদ করা প্রয়োজন। ইতিপূর্বে গ্রেপ্তার অন্যান্য আসামিরাও তার সম্পর্কে তথ্য দিয়েছে যা যাচাই-বাছাই হওয়া প্রয়োজন।

মিজান বুয়েটের ওয়াটার রিসোর্স অ্যান্ড প্লানিং বিভাগের ছাত্র। তিনি শেরেবাংলা হলের ১০১১ নম্বর কক্ষে থাকতেন। ওই কক্ষে আবরারও থাকতেন। গত ১০ অক্টোবর দুপুরে মিজানকে তার নিজ কক্ষ থেকে গ্রেপ্তার করে ডিবি। ১১ অক্টোবর তাকে আদালতে হাজির করা হয়। ওই সময় কোনো রিমান্ডের আবেদন করা হয়নি। ফলে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।

গত ৬ অক্টোবর রাতে বুয়েটের শেরেবাংলা হলের ২০১১ নম্বর কক্ষে ডেকে নিয়ে আবরারকে পিটিয়ে হত্যা করে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। এ ঘটনায় আবরারের বাবা মো. বরকত উল্লাহ বাদী হয়ে ১৯ জনকে আসামি করে চকবাজার থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এই মামলায় এ পর্যন্ত ২০ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ৮ জন স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়ে আবরারকে হত্যার দায় স্বীকার করেছেন।