‘আগে আমি মদ খেয়েছি, পরে মদ আমাকে খেয়েছে’

পূজা ভাট নব্বই দশকের জনপ্রিয় বলিউড নায়িকা। বাবা মহেশ ভাটের হাত ধরেই নায়িকা হিসেবে বলিউডে আবির্ভাব। তবে গত এক দশক ধরে সাফল্যের সঙ্গে করছেন প্রযোজনা। সম্প্রতি এক টুইটে পূজা ভাট ফাঁস করলেন ব্যক্তিগত জীবনের এক অজানা গল্প। জানালেন, হতাশার কবলে পড়ে অনেক বছর নেশায় ডুব দিয়েছিলেন। এরপর স্বাভাবিক জীবনে ফিরে এসেছেন।

পূজা বলেন, আমিও আপনাদের মতো যন্ত্রণা সয়েছি। আঘাতের ধাক্কায় পড়েছি, ভেঙে পড়েছি। কষ্ট ভুলতে নেশা হাত তুলেছি। প্রথমে আমি মদ খেতাম। পরে মদ আমাকে খেয়েছে। টলোমলো পায়ে অনেকবার ব্যাথা পেয়েছি, পড়েছি। এরপর নেশাকে ইতি টেনে গত দুই বছর ১০ মাস ধরে আমি আবার আপনাদের সেই আগের পূজা ভাট। বাবা মহেশ ভাটের ছবি ‘সড়ক টু’তে আলিয়া ভাটের সঙ্গে অভিনয় করছি। খোলা হাওয়ায়, নীল আকাশের নিচে বুক ভরে শ্বাস নিচ্ছি। আমি পারছি। আপনারা পারবেন না!

পূজা ভাটের ক্যারিয়ারের প্রথম ছবি ‘ড্যাডি’। এরপর সড়ক, দিল হ্যায় কে মানতা নেহি, স্যার’র মতো একগুচ্ছ হিট ছবি উপহার দেন। আচমকাই নেশার কবলে পড়ে সবকিছু এলোমেলো হয়ে যায়। সেই ধাক্কা সামলে বহু বছর পরে আবার বাবার ছবিতেই প্রত্যাবর্তন। প্রচণ্ড আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে পূজা লেখেন, জীবন আমাকে কম পোড়ায়নি। এরপরেও আমি যদি পোড়া কাঠ না হয়ে পুড়ে পুড়ে সোনা হতে পারি, আপনারাও পারবেন। একজন মেয়ে হয়ে যদি আমি নেশাকে দূরে রাখতে পারি, তাহলে আপনারাও পারবেন। নেশা কোনো সমস্যার সমাধান নয়। নতুন সমস্যার কারণ।

এদিকে ক্যারিয়ারের প্রথম থেকেই ঠোঁটকাটা স্বভাবী পূজা এখনো একই রকম। কিছুদিন আগে বলিউড তারকাদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সাক্ষাৎ করেন। তখন মহাত্মা গান্ধীর এক বাণী নিয়ে পূজা বলেন, আমার এই ধরনের সরকারের প্রতি কোনো আগ্রহ নেই, সম্মানও নেই, যে অনৈতিক পথে হেঁটে নিজের অন্যায় ঢাকে।

ক্যারিয়ারে মহেশ ভাটের পরিচালনায় পূজার অন্যতম সফল ছবি ‘সড়ক’। ১৯৯১ সালে মুক্তি পাওয়া ছবিটির নায়ক ছিলেন সঞ্জয় দত্ত। ওই ছবির সিক্যুয়ালে পূজা ভাটের সঙ্গে অভিনয় করছেন আলিয়া ভাট ও আদিত্য রায় কাপুর। ছবিটি ২০২০ সালের ১০ জুলাই মুক্তি পাবে।