আওয়ামী লীগের ডিএনএ টেস্ট করাতে বললেন আলাল

বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব ও যুবদলের সাবেক সভাপতি সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল আওয়ামী লীগে অনুপ্রবেশকারী প্রসঙ্গে বলেছেন, বর্তমান আওয়ামী লীগ শেখ মুজিবুর রহমানের আওয়ামী লীগ নয়, হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর, মাওলানা ভাসানীর আওয়ামী লীগ নয়। এই আওয়ামী লীগের ডিএনএ টেস্ট করার দরকার কারণ আওয়ামী লীগের নেতারা বলেন দলে অনুপ্রবেশকারী ঢুকেছে।

আজ মঙ্গলবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের মিলনায়তনে বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি এবং নিরপেক্ষ নির্বাচনের দাবিতে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

আলাল বলেন, স্বেচ্ছাসেবক লীগের কর্মীসভায় ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ক্ষমতা চিরস্থায়ী জন্য আসে নাই। দয়া করে কেউ ক্ষমতার দাপট দেখাবেন না। এটা কার উদ্দেশ্যে বলেছেন? জনগণ তা জানে না, এর ব্যাখ্যা বিশ্লেষণ আপনারা (আ.লীগ) করে নিবেন।

তিনি বলেন, নূর হোসেনকে নিয়ে মশিউর রহমান রাঙ্গা যে কথা বলেছেন তার অপর পৃষ্ঠায় আরো ভয়ঙ্কর কথা বলেছেন, রাঙ্গা বলেছেন শেখ মুজিবুর রহমান বাকশাল করে গণতন্ত্রের পেরেকে সর্বশেষ কফিন ঠুকে দিয়েছিলেন। মশিউর রহমান রাঙ্গা আরো বলেছেন, দেশে গুম খুন হচ্ছে, আমরা মানুষের আত্ম কান্না শুনতে পাচ্ছি, নেতাকর্মীদের মামলা দিয়ে কারাগারে পাঠানো হচ্ছে, এরশাদকে মামলা দিয়ে কষ্টে রাখা হয়েছিল, এই সরকার হচ্ছে সবচেয়ে বড় স্বৈরাচারী সরকার।

তিনি আরো বলেন, এই ধরনের কথা রাশেদ খান মেননের কাছেও শুনতে পাই। মশিউর রহমান রাঙ্গার কাছেও শুনতে পাই এবং সাবেক মন্ত্রীদের কাছেও শুনতে পাই তারা যে কি পরিমাণ আতঙ্কে আছে তাদের বক্তব্য শুনেই বোঝা যায়।

আলাল বলেন, ৭ নভেম্বর বা এর প্রেক্ষাপট নিয়ে আমি আজ কোনো কথা বলবো না। রাজনীতিবিদরা যদি ইতিহাস নিয়ে বেশি ঘাঁটাঘাঁটি করেন তাহলেই ইতিহাসবিদদের এই দেশে কোনো ঠাঁই পা‌বে না। যদিও তা‌দের না থাকাটা শেখ হাসিনা পাকাপোক্ত করেছেন। সেই জায়গায় আমি আবার নতুন সংযোজনী দিতে চাই না।

এ সময় আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন বিএন‌পির স্থায়ী ক‌মি‌টির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহ‌মেদ, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শওকত মাহমুদ, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ফজলুর রহমান প্রমুখ।