আইএস জঙ্গিদের ধাঁচে জম্মু-কাশ্মীরে হামলার ছক কষছে পাকজঙ্গিরা, দাবি রিপোর্টে

প্রতীকী ছবি।
Social Share

ছোট ছোট ড্রোনে বিস্ফোরক জুড়ে সেগুলোকে ব্যবহার করে জম্মু-কাশ্মীরে হামলা চালানোর চেষ্টা করছে পাক জঙ্গিরা। আর এ কাজে তাদের সাহায্য করছে পাক সেনা। গোয়েন্দাদের তথ্যের ভিত্তিতে হিন্দুস্থান টাইমসে প্রকাশিত একটি রিপোর্টে তেমনই দাবি করা হয়েছে।

মাসখানেক আগেই জম্মু-কাশ্মীরে সীমান্তলাগোয়া একটি গ্রামে প্রচুর অস্ত্র উদ্ধার হয়। সেনারা দাবি করে, জঙ্গিদের হাতে অস্ত্র পৌঁছে দিতে ড্রোন ব্যবহার করছে পাকিস্তান। পঞ্জাবেও একই ধরনের ঘটনা ঘটে। গোয়েন্দা সূত্রে খবর, অস্ত্র পৌঁছানোর পাশাপাশি এ বার ড্রোনের মাধ্যমে হামলা চালানোর ছক কষছে পাক জঙ্গিরা।

আরও দাবি, এ কাজে দক্ষ করে তুলতে জঙ্গিগোষ্ঠীগুলিকে প্রশিক্ষণ দিচ্ছে পাক সেনারা। ইরাক এবং সিরিয়ায় সেনাদের উপর হামলা চালানোর জন্য ড্রোন বা কোয়াডকপ্টারকে কাজে লাগাত আইএস জঙ্গিরা। তাদের সেই পন্থায় উৎসাহিত হয়ে জঙ্গিদের এই কাজে লাগাতে চাইছে পাক সেনারা।

সস্তার ড্রোন কিনে তাতে বোমা বা বিস্ফোরক বেঁধে দিয়ে ছোট ছোট হামলা চালানোর প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে জঙ্গিদের। এ কাজে মদত জোগাচ্ছে আইএসআই-ও। এমন দাবি করা হয়েছে ওই রিপোর্টে।

ড্রোন বিশেষজ্ঞ ডন র‌্যাসলার জানাচ্ছেন, শত্রুপক্ষের উপর হামলা চালাতে ইরাকি সেনারা প্রথম এ ধরনের ড্রোন ব্যবহার করেছিল। পরে আইএস জঙ্গিরা সেই একই পদ্ধতি নেয়। এ বার তাদের সেই হামলার পদ্ধতিকেই ভারতের বিরুদ্ধে কাজে লাগাতে চাইছে পাকিস্তান।

সেনার এক শীর্ষ আধিকারিক জানিয়েছেন, সেনা এবং বিএসএফকে এ ব্যাপারে সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে। সীমান্তে কোনও ড্রোন দেখলেই যেন গুলি করে সেটাকে নামানো হয় সেই নির্দেশও দেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, “যদি পাকিস্তান এ ধরনের হামলা শুরু করে আমরাও যোগ্য জবাব দেব। তা সে ড্রোন দিয়েই হোক বা সরাসরি। পাকিস্তানের ছক সামনে আসার পরই আমাদের সেনারা এ নিয়ে কাজ শুরু করে দিয়েছে।”