অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ আইন: সিনেটে ‘৩০ বছরের মধ্যে বড় অগ্রগতি’

70
Social Share

যুক্তরাষ্ট্রে আইন প্রণেতাদের একটি দ্বিদলীয় গ্রুপ প্রায় ৩০ বছরের মধ্যে প্রথমবারের মতো বড় ধরনের আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ন্ত্রণ আইন নিয়ে একটি মতৈক্যে পৌঁছেছে। এর মাধ্যমে সপ্তাহের শেষ নাগাদ সিনেটে এ নিয়ে ভোটের পথ প্রশস্ত হলো।

৮০ পৃষ্ঠার বিলটি মঙ্গলবার প্রকাশ করা হয়। এতে অস্ত্র কেনার সময় তরুণদের অতীত যাচাই করায় কড়াকড়ি আরোপ এবং অন্যদের বা নিজের জন্য বিপদ হিসাবে বিবেচিত ব্যক্তিদের ওপর আরো বেশি যাচাই ও তাদের কাছ থেকে সাময়িকভাবে অস্ত্র জব্দ করার ব্যবস্থা অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

প্রস্তাবটি সিনেটে ৬৪-৩৪ ভোটে প্রাথমিক পদ্ধতিগত বাধা অতিক্রম করে। ডেমোক্র্যাটদের সবার (৪৮) সঙ্গে ১৪ জন রিপাবলিকান এবং দুজন স্বতন্ত্র সিনেটর বিলটিকে সমর্থন দেন।

আলোচনার প্রধান ডেমোক্র্যাট সিনেটর ক্রিস মারফি সিনেটে বলেন, ‘আমি মনে করি এই সপ্তাহে আমরা যে আইনটি পাস করব তা ৩০ বছরে কংগ্রেসের বন্দুক-সহিংসতা বিরোধী আইনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অংশ হয়ে উঠবে। এটি একটি বড় অগ্রগতি। আরো গুরুত্বপূর্ণ কথা হচ্ছে, এটি একটি দ্বিদলীয় অগ্রগতি। ’
সিনেট সংখ্যাগরিষ্ঠ নেতা চাক শুমার এ নিয়ে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব এগিয়ে যাওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

সিনেটে অনুমোদনের দিকে এগিয়ে যাওয়া প্রস্তাবটি তুলনামূলকভাবে নমনীয়। তবে আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ন্ত্রণ আইন নিয়ে তিক্ত বিরোধ ও বিতর্কের মধ্যে কিছুটা হলেও অগ্রগতি।  

যুক্তরাষ্ট্রে বছরের পর বছর ধরে ব্যাপক গণগুলির ঘটনা ও শিশুসহ বহু মানুষের প্রাণহানি অব্যাহত থাকা সত্ত্বেও অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ আইনের ক্ষেত্রে অগ্রগতি সামান্য। সম্প্রতি টেক্সাসের একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ১৯ শিশু শিক্ষার্থী ও দুই শিক্ষক গুলিতে নিহত হওয়ার পর নতুন করে আইনে কড়াকড়ির বিষয়টি আলোচনায় আসে।

সূত্র: আলজাজিরা