অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ বিনির্মাণ করছেন শেখ হাসিনা : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

99
Social Share

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ অসাম্প্রদায়িক চেতনায় দুর্বার গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাদেশকে অসাম্প্রদায়িক চেতনায় গড়ে তুলতে চেয়েছিলেন। তার এ স্বপ্ন বর্তমান প্রধানমন্ত্রী বাস্তবায়ন করতে সক্ষম হয়েছেন।

আজ শুক্রবার বিকেলে ড. ধর্মসেন মহাস্থবিরের জাতীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া উপলক্ষে আয়োজিত শ্রদ্ধা নিবেদন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশি বৌদ্ধদের সর্বোচ্চ ধর্মীয়গুরু চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার ঊনাইনপুরা লঙ্কারাম বিহারের অধ্যক্ষ ড. ধর্মসেন মহাস্থবিরের জাতীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া উপলক্ষে পটিয়ায় সকল ধর্মের মানুষের মিলন মেলায় পরিণত হয়েছে। যুগে যুগে এমন কিছু মানুষ জন্ম নেয়, যাদের ত্যাগ-তীতিক্ষা, সাধন-ভোজন স্বীয় কর্মকাণ্ডে নিজকে মৃত্যুর পরও মানুষের কাছে ধরে রাখতে পারে। তেমনি একজন মহান ব্যক্তিত্ব ড. ধর্মসেন মহাস্থবির। পটিয়াতে অনেক জ্ঞানী, গুণী মানুষের জন্ম হয়েছে। যাদেরকে নিয়ে এ এলাকার মানুষ দেশের জন্য গর্বিত।

তিনি বলেন, বৌদ্ধরা বাংলাদেশের আদি অধিবাসী। তারা হাজার বছর ধরে বৌদ্ধ কৃষ্টি ও গৌতমবুদ্ধের অহিংসার বাণী প্রচার করে আসছে।

এয়োদশ সংঘরাজ ড. জ্ঞানশ্রী মহাস্থবিরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত শ্রদ্ধা নিবেদন অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন জাতীয় সংসদের হুইপ সামশুল হক চৌধুরী, প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, রাষ্ট্রপতির একান্ত সচিব সম্পদ বড়ুয়া, ঢাকা আম্বর শাহ জামে মসজিদের খতিব মওলানা মাজাহারুল ইসলাম, চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মমিনুল ইসলাম, পটিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরী, যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সম্পাদক বদিউল আলম বদি, পটিয়া কেন্দ্রীয় বৌদ্ধ বিহারের অধ্যক্ষ ড. সংঘপ্রিয় থেরো, সিএমপি পুলিশ কমিশনার ছালেহ আহমদ তানভীর, চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি আনোয়ার হোসেন, চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ সুপার এসএম রশিদুল হক, বৌদ্ধ সমিতির চেয়ারম্যান অজিত রঞ্জন বড়ুয়া, পুজা কমিটির কেন্দ্রীয় সভাপতি নির্মল চ্যাটার্জী, উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক প্রণব বড়ুয়া অর্ণব, টিংকু বড়ুয়া, প্রধান সম্বনয়ক সবুজ বড়ুয়া সাজু, চট্টগ্রাম কারাগারের বেসরকারি কারা পরিদর্শক আবদুল হান্নান লিটন, অশোক বড়ুয়া, উত্তম কুমার বড়ুয়া, সেবপ্রিয় বড়ুয়া রিংকু।

অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন স্বপন কুমার বড়ুয়া, অধ্যাপক অভিজিত বড়ুয়া মানু ও নিপুল তাপস কাঞ্চন। সন্ধ্যা ৬টায় প্রয়াত সংঘরাজের দেহে অগ্নি সংযোজনের মাধ্যমে দাহ করা হয়।