অযোধ্যায় শ্রীরামচন্দ্রের নামে আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর নির্মাণ করছে যোগী সরকার

Social Share

অযোধ্যা: ১৭ সেপ্টেম্বর পিতৃপক্ষ শেষ হলেই শুরু হবে বহু প্রতীক্ষিত রাম মন্দিরের নির্মাণ কাজ। রাম মন্দিরের নির্মাণ কাজ শেষ হলেই অযোধ্যায় দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ভক্তদের সমাগম হবে। শ্রীরাম জন্মভূমি ট্রাস্ট ও যোগী সরকার মনে করছে, সেখানে সারা বছরই বিদেশি ভক্তদেরও ভিড় থাকবে। তাই অযোধ্যার সঙ্গে গোটা দেশ এবং বিশ্বেরও যোগাযোগ ব্যবস্থা বাড়ানোর উদ্যেগ নিয়েছে যোগী সরকার।

এবার অযোধ্যায় আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর নির্মাণের কাজ শুরু হয়েছে। সেই বিমানবন্দরের নামকরণ হবে শ্রীরামচন্দ্রের নামে। ২০১৭ সাল থেকেই অযোধ্যায় বিমানবন্দর নির্মাণের কাজ চলছিল। বিমানবন্দরটিকে সম্প্রসারণ করে সেটিকে আন্তর্জাতিক হিসাবে গড়ে তুলতে উদ্যোগী হয়েছে যোগী সরকার। জানা গিয়েছে, ২০২১ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে এই বিমানবন্দরের কাজ শেষ হবে। এই বিমানবন্দর পুননির্মাণের জন্য ৫২৫ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে।

৬০০ একর জমি লাগবে আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর তৈরি করতে। রানওয়ে হবে ৩৭৫০ মিটার লম্বা ও ৪৫ মিটার চওড়া। ইতিমধ্যেই যোগী সরকার বিমানবন্দরটিকে সম্প্রসারণের পরিকল্পনা নিশ্চিত করেছে। বন্দর সম্প্রসারণের জন্য জমিও চিহ্নিত করা হয়ে গেছে। এই মর্মে জেলা আধিকারিক একটি রিপোর্টও পেশ করেছে।

অন্যদিকে, আধুনিক প্রযুক্তি কাজে লাগিয়ে রাম মন্দিরের ভিত নির্মাণ করা হচ্ছে। যাতে মন্দির কমপক্ষে ১,৫০০ বছর টিকে থাকে এবং মন্দিরের কাঠামো যাতে অন্তত ১,০০০ বছর অটুট থাকে। এবার রাম মন্দিরের পাশাপাশি শ্রীরামচন্দ্র নামে আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরও হচ্ছে যোগী রাজ্যে।