অভিযোগ আতিকের : আচরণবিধি মানছেন না তাবিথ

Social Share

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে (ডিএনসিসি) মেয়র পদে বিএনপির প্রার্থী তাবিথ আউয়াল নির্বাচনী আচরণবিধি মানছেন না বলে অভিযোগ করেছেন একই পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী আতিকুল ইসলাম। গতকাল সোমবার রাজধানীর খিলগাঁওয়ের তালতলা মার্কেটে গণসংযোগের সময় ওই অভিযোগ করেন তিনি।

আতিকুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা নির্বাচনী আচরণবিধি মেনে গণসংযোগ ও প্রচার চালাচ্ছি। কিন্তু বিএনপির প্রার্থী আচরণবিধি মানছেন না। আমরা গণতন্ত্রে বিশ্বাস করি। বিশ্বাস করি, যার ভোট সে দেবে, যাকে খুশি তাকে দেবে।’

ভোটের প্রচারে আওয়ামী লীগের লোকজন বিএনপির প্রার্থীদের নির্বাচনী কাজে বাধা দিচ্ছে বলে তাবিথ আউয়াল যে অভিযোগ করেছেন সে বিষয়ে আতিকুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা কোনো দিন কাউকে বাধা দেইনি, তারা মিথ্যা কথা বলছে। একটু আগে আমি আসার সময় দেখলাম, বিএনপির একটি মিছিল গান বাজাতে বাজাতে যাচ্ছে। আমি চাইলে তাদের দাঁড় করাতে পারতাম, কিন্তু আমি স্বাগত জানিয়েছি। গান বাজিয়ে যাওয়ার সময় আমি ভিডিও করে নিয়ে এসেছি।

সুতরাং তারা হয়তো নিজেরা বিশৃঙ্খলা করে একটি দোষ আমাদের ওপর চাপিয়ে দিচ্ছে।’

গতকাল তালতলা মার্কেট, মাটির মসজিদ, আবুল হোটেল, রামপুরা এবং বাড্ডা এলাকায় গণসংযোগ করেন আতিকুল ইসলাম। তখন উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের স্থানীয় নেতাকর্মী এবং সমর্থিত কাউন্সিলর পদপ্রার্থীরা।

নির্বাচিত হতে পারলে ডিএনসিসির প্রতিটি ওয়ার্ডকে মাদকমুক্ত করা, জলজট ও যানজট নিরসন, সব বয়সের মানুষের বসবাস উপযোগী এবং সচল শহর গড়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন আতিক। পরিকল্পনা অনুযায়ী সব কাজ সম্পন্ন করতে পূর্ণ মেয়াদে মেয়র হিসেবে নির্বাচিত করার জন্য ভোটারদের আহ্বান জানান আতিকুল ইসলাম। দখল হয়ে যাওয়া মাঠ ও সিটি করপোরেশনের জমি উদ্ধারে বিশেষ নজর দেবেন বলেও ভোটারদের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তিনি।

বাড্ডার আলাতুন্নেছা মাদরাসার জনসভায় আতিকুল ইসলাম বলেন, ‘নৌকা উন্নয়নের প্রতীক। বাংলাদেশে উন্নয়নের মার্কা একটা আর তা হলো নৌকা। উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে হলে নৌকা মার্কায় ভোট দিতে হবে। আমাকে যদি আপনারা নির্বাচিত করেন তাহলে সবাই মিলে সবার ঢাকা, সুস্থ, সচল ও আধুনিক ঢাকা গড়ে তুলব।’